উদয়পুর (রাজস্থান): বিপুল জনাদেশ নিয়ে ক্ষমতায় ফিরেছেন বিজেপি৷ শপথ গ্রহণ বৃহস্পতিবার৷ তার আগেই ফের একবার রাম মন্দির ইস্যুতে মোদীকে হুঁশিয়ারি দিয়ে রাখলেন সঙ্ঘ প্রধান মোহন ভগবত৷ জানিয়ে দিলেন, ‘‘রামের কাজ করতে হবে, করতেই হবে৷’’

ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর রাজস্থানের উদয়পুরে বক্তব্য রাখেন রাষ্ট্রীয় সয়ং সেবক সঙ্ঘের প্রধান৷ সেখানেই তিনি বলেন, ‘‘রামের কাজ করতেই হবে৷ আগে করতে হবে সেটি৷ প্রয়োজনে আমাদের নিজেদেরকে দায়িত্ব নিতে হবে এই কাজের জন্য৷’’

এর আগে রাম মন্দির ও বাবরি মসজিদ সংক্রান্ত সমস্যার সমধানে তিন মধ্যস্থতাকারীকে দায়িত্ব দিয় দেশের শীর্ষ আদালত। ওই রায়কে স্বাগত জানায় আরএসএস। পাশাপাশি তারা জানিয়ে দিয় রাম মন্দির যেখানে তৈরি হওয়ার কথা ছিল সেখানেই করতে হবে৷

আরও পড়ুন: ফের RSS-এর মঞ্চে থাকতে পারেন রতন টাটা

২০১৪ সালের লোকসভা ভোটে বিজেপির এজেন্ডার অন্যতম ছিল রাম মন্দির৷ প্রতিশ্রুতি ছিল দল ক্ষমতায় এলে রাম মন্দির তৈরি করা হবে৷ কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ণের মুখ দেখেনি৷ যা নিয়ে সংঘ-বিজেপি টানপোড়েন হয়৷ পরে মন্দির ইস্যু কোর্টের অধীনে চলে যায়৷ এদিন মোহন ভগবত বলেন, ‘‘লক্ষ্যপূরণে সবসময় আমাদের কাজ করতে হবে৷ প্রতিষ্ঠানগুলিকে এমন করে চালনা করতে হবে যাতে লক্ষ্যপূরণ সম্ভব হয়৷’’ ভগবতেই এহেন মন্তব্য মোদীর অস্বস্তির বলে মনে করছেন রাজনৈতির বিশ্লেষকরা৷

অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরি আরএসএসের অন্যতম দাবি৷ বিজেপির সাফল্যে পিছনে রয়েছে সঙ্ঘের হাত৷ গেরুয়া দলটির পালে হওয়া লাগারও অন্যতম কারণ এই মন্দির তৈরির বিষয়টি৷ ভগবত জানিয়েছেন, মানুষের ইচ্ছে রয়েছে৷ চেষ্টা করলে তাই এগিয়ে যাওয়া যায় লক্ষ্যপূরণের দিকে৷

প্রসঙ্গত, অযোধ্যায় রাম মন্দির ও বাবরি মসজিদ সংক্রান্ত সমস্যার সমধানে তিন মধ্যস্থতাকারীকে দায়িত্ব দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। মধ্যস্থতাকারীরা কথা বলছে মন্দির-মসজিতের সঙ্গে যুক্ত সংগঠনগুলির সঙ্গে৷ ১৯শের ভোটের আগে কোর্টের রায়কে হাতিয়ার করেই মোদী বলেছিলেন বিচারাধীন বিষয় কোর্ট যা রায় দেবে তাই করা হবে৷ যা নিয়ে খুশি ছিল না সঙ্ঘ৷