লখনউ: দিনকয়েক আগে নিজের গ্রামের মাঠে বন্ধুদের সঙ্গে শরীরচর্চা করতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। তবে আউটডোর সেশন শুরু করলেও বল হাতে এতদিন দেখা যায়নি মহম্মদ শামিকে। বৃহস্পতিবার দিনকয়েকের অপেক্ষার পর বল হাতে নেটে দেখা গেল জাতীয় দলে পেস বিভাগের অন্যতম ভরসা মহম্মদ শামিকে।

উত্তরপ্রদেশে নিজের ফার্মহাউসে অবশেষে বল হাতে নেট প্র্যাকটিসে নেমে পড়লেন বঙ্গ পেসার। সোশ্যাল মিডিয়া নিজেই সে কথা জানালেন শামি। বৃহস্পতিবার টুইটারে নেট সেশনের একটি ভিডিও পোস্ট করেন এই ফাস্ট বোলার। ক্যাপশন হিসেবে লেখেন, ‘আমার ফার্মহাউসে কোয়ালিটি প্র্যাকটিস সেশন। সব ভাইরা একসঙ্গে।’ প্রায় তিনমাস পরে নেটে বল হাতে একটুও ছন্দহীন মনে হয়নি শামিকে। গতি এবং স্যুইং’য়ের সংমিশ্রণে বরং দারুণ ছন্দে পাওয়া গিয়েছে শামিকে।

লকডাউনের আগে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে দু’ম্যাচের টেস্ট সিরিজে শেষবার জাতীয় দলের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন শামি। ইদানিং লাল বলের ক্রিকেটে ইশান্ত শর্মা, জসপ্রীত বুমরাহর সঙ্গে ভারত অধিনায়কের অন্যতম ভরসার নাম মহম্মদ শামি। সাম্প্রতিক সময়ে এই তিন পেসার জাতীয় দলে পেস বোলিং’য়ের ক্ষেত্রে এক নবজাগরণ এনেছেন বলা যায়। ২০১৮ শেষদিকে চোট সারিয়ে প্রত্যাবর্তনের পর থেকে জাতীয় দলের একজন নিয়মিত সদস্য শামি। ২০১৮-১৯ অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ভারতের প্রথম ঐতিহাসিক সিরিজ জয়ে বল হাতে অন্যতম ভূমিকা নিয়েছিলেন শামি।

২০১৯ বিশ্বকাপে হ্যাটট্রিকের ঘটনা শামির কেরিয়ারে অন্যতম উল্লেখযোগ্য ঘটনা। আগামী দিনগুলোতেও লম্বা ফর্ম্যাটে কোহলিব্রিগেডকে সফল হতে গেলে বল হাতে শামির ছন্দে থাকাটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই দীর্ঘ লকডাউনের পরে নেটে বল হাতে শামির পারফরম্যান্সের ভিডিও দেখে আশ্বস্ত হতেই পারেন অনুরাগীরা। দেশে করোনা ভাইরাসের জেরে সাম্প্রতিক যে পরিস্থিতি তাতে অগস্টের আগে কোনওভাবেই জাতীয় দলের প্রস্তুতি শিবির আয়োজন সম্ভব নয়। দিনকয়েক আগে জানিয়ে দিয়েছেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

তাই যাবতীয় গাইডলাইন মেনে ব্যক্তিগত উদ্যোগে সম্প্রতি আউটডোর সেশন শুরু করেছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। তালিকায় রয়েছেন চেতেশ্বর পূজারা, রোহিত শর্মা, শার্দুল ঠাকুর, ইশান্ত শর্মা। আর তাতে নবতম সংযোজন মহম্মদ শামি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ