বিশাখাপত্তনম: দুই ইনিংসে রোহিত শর্মার শতরান কিংবা প্রথম ইনিংসে ময়াঙ্কের ধ্রুপদী দ্বিশতরান যদি বিশাখাপত্তনমে ভারতের ম্যাচ জয়ের প্রধান কারণ হয়ে থাকে, তবে দ্বিতীয় ইনিংসে পেসার মহম্মদ শামির ৫ উইকেট ভারতের বড় জয়ের অন্যতম কারণ। পঞ্চমদিন সকালে বল হাতে টিম ইন্ডিয়ার ‘স্টার অফ দ্য শো’ বঙ্গ পেসারই। আর প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেওয়ার সাথে এদিন কপিলদেব নিখাঞ্জ ও জাভাগাল শ্রীনাথের সঙ্গে নিজেকে এলিট লিস্টে উন্নীত করলেন শামি।

চতুর্থ ইনিংসে ৩৯৫ রান তাড়া করতে গিয়ে রবিবার ভারতীয় বোলারদের দাপুটে আক্রমণের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করেন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানরা। রবিবার পাঁচ উইকেট নেওয়ার পথে তেম্বা বাভুমা, ফাফ ডু’প্লেসি, কুইন্টন ডি’কক, ডেন পিয়েট ও কাগিসো রাবাদাকে সাজঘরে ফেরান বঙ্গ পেসার। আর সেই সঙ্গে ঘরের মাঠে কোনও টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচ উইকেট দখল করার নিরিখে এলিট ক্লাবে নিজের নাম জুড়ে নেন শামি। তালিকায় বাকি দুই নাম প্রাক্তন বিশ্বজয়ী অধিনায়ক কপিলদেব ও জাভাগাল শ্রীনাথের।

শুধু তাই নয়, ২০১৮ পরবর্তী সময় একমাত্র বোলার হিসেবে তিন বা তার বেশি ইনিংসে ৫ উইকেট দখল করার নজির গড়লেন ভারতীয় পেসার। মহম্মদ শামির পাশাপাশি চার উইকেট নিয়ে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করেন স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজাও। যার মধ্যে একই ওভারে তিন উইকেট নিয়ে পঞ্চমদিনের প্রথম সেশন ভারতের নামে করে নেন তিনি। একইসঙ্গে টেস্ট ক্রিকেটে দ্রুততম ৩৫০ উইকেট শিকারী হিসেবে শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি মুথাইয়া মুরলিথরনের সঙ্গে একাসনে বসে পড়েন তিনি।

নবম উইকেটে ৯১ রানের জুটিতে ডেন পিয়েট-সেনুরান মুথুস্বামী চেষ্টা করলেও ভারতীয় বোলারদের পাশে তা একেবারেই যথেষ্ট ছিল না। শেষ অবধি মাত্র ১৯১ রানেই ইতি ঘটে প্রোটিয়াদের দ্বিতীয় ইনিংসের। ২০৩ রানে ম্যাচ জিতে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় টিম ইন্ডিয়া। চতুর্থদিন ৪ উইকেটে ৩২৩ রান তুলে দ্বিতীয় ইনিংস ডিক্লেয়ার ঘোষণা করেছিল ভারতীয় দল।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব