লন্ডন: শামি-হাসিন বিতর্কে আলিশবার পর মুখ খুললেন মহম্মদ ভাই৷এই দুই চরিত্রকে ঘিরেই শামির বিরুদ্ধে অর্থ নেওয়া এবং ম্যাচ-গড়াপেটার তদন্ত করছে বিসিসিআই-এর দূর্নীতিদমন শাখা৷

শামি ও হাসিনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের কথা স্বীকার করে নিলেও ম্যাচ-গড়াপেটা সংক্রান্ত ঘৃণ্য বিষয়ে তিনি ভাবতেও পারেন না বলে জানালেন লন্ডনবাসী ভারতীয় ব্যবসায়ী মহম্মদ ভাই৷মহম্মদ শামির স্ত্রী হাসিন অভিযোগ করেন দুবাইয়ে শামি পাকিস্তানি মহিলা আলিশবার কাছ থেকে টাকা নিয়েছিলেন৷আর সেই টাকা তাঁকে মহম্মদ ভাই পাঠিয়েছিলেন বলে ফোনে স্ত্রী হাসিনকে জানিয়েছিলেন শামি৷

আরও পড়ুন: শামি-হাসিন বিতর্কে নতুন চরিত্র আকাঙ্খা

রবিবারই শামিকে টাকা দেওয়ার কথা অস্বীকার করে আলিশবা৷বুধবার মহম্মদ ভাই পরিষ্কার জানিয়ে দেয়, আলিশবা নামে কোনও মহিলাকে সে চেনেন না৷সংবাদমাধ্যমেই আমি আলিশবাকে দেখলাম৷এক টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মহম্মদ ভাই বলে, ‘আমি কোনও দিন ম্যাচ-গড়াপেটার মতো ঘৃণ্য কাজ করার কথা ভাবতে পারি না৷ম্যাচ-গড়াপেটা সংক্রান্ত কোনও কথা বলিনি এবং কোনও অর্থ আমি কাউকে দিইনি৷আমি ভারতে জন্মেছি, সুতরাম দেশের মাথানত করার কথা আমি ভাবতেও পারি না৷’

আরও পড়ুন: হাসিনের সঙ্গে কথা বলতে কলকাতায় নীরজ কুমার

এ ব্যাপারে ইতিমধ্যেই তদন্তে নেমেছে বোর্ডের দূর্নীতিদমন শাখা৷গত বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে দিল্লিতে শামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন দূর্নীতিদমন শাখার প্রধান নীরজ কুমার৷বুধবার এ ব্যাপারে হাসিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে কলকাতায় এসেছেন তিনি৷ প্রয়োজনে বোর্ডের দূর্নীতিদমন শাখার তদন্তকারী অফিসাররে সামনে আসতে রাজি মহম্মদ ভাই৷সে জানায়, ‘আমি আলিশবা নামে কোনও মহিলার সঙ্গে দেখা করিনি৷মিডিয়ার মাধ্যমে আমি ওকে চিনি৷এ ব্যাপারে আমি বোর্ডের দূর্নীতিদমন শাখার সামনে আসতে রাজি৷ প্রয়োজনে লাই-ডিডেক্টর অথবা নারকো টেস্ট দিতেও তৈরি৷’

আরও পড়ুন: আইপিএলে নতুন হেয়ারস্টাইলে বিরাট

কিন্তু কে এই মহম্মদ ভাই? জন্ম গুজরাতের সুরাতে৷গত দু’ দশক ধরে রয়েছে ইংল্যান্ডে৷লন্ডনে একটি মোবাইল ফোনের দোকান রয়েছে মহম্মদ ভাইয়ের৷লন্ডন খেলতে যাওয়ার সময় শামি ও হাসিন দু’জনেই মহম্মদ ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করতেন৷মহম্মদ ভাই জানায়, ‘ইংল্যান্ডে ম্যাচ খেলতে আসার সময় শামি ও হাসিনের সঙ্গে আমার পরিচয় হয়৷ওরা যখন খাবার এবং শপিংয়ের জন্য কোথায় যেতে আমি ওদের সঙ্গ দিতাম৷’