হায়দরাবাদ: শততম টেস্টের দোরগোড়ায় আটকে যাওয়া প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক মহম্মদ আজহারউদ্দিন ক্রিকেটের আঙিনায় নতুন ইনিংস শুরু করতে চাইছেন৷ জাতীয় দলকে দীর্ঘদিন নেতৃত্ব দেওয়া আজহার এবার ক্রিকেট প্রশাসক হিসাবে হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনকে নেতৃত্ব দিতে চাইছেন৷ সেকারণেই এইচসিএ’র সভাপতি পদে ভোটে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন তিনি৷ সেই মতো বুধবারই হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি পদের জন্য মনোনয়ন পেশ করেন আজহার৷

আরও পড়ুন: যুবি’র ছয় ছক্কার রেকর্ডের এক যুগ

দু’বছর আগেও আজহারউদ্দিন এইচসিএ’র সভাপতি পদে মনোনয়ন পেশ করেছিলেন৷ তবে সেবার বাতিল হয় তাঁর মনোনয়ন৷ ২০১৭ সালে মনোনয়নের সঙ্গে পেশ করলেও বিসিসিআই তাঁর উপর থেকে নির্বাসন তুলে নিয়েছে, এই মর্মে কোনও নথি জমা দিতে না-পারায় রিটার্নিং অফিসার ভোটের লড়াই থেকে দূরে সরিয়ে দেন আজহারকে৷ এবার প্রাক্তন চিফ ইলেকশন কমিশনার ভিএস সম্পথের কাছে মনোনয়ন পত্র জমা দেন আজহার৷

মনোনয়ন পেশ করার পর আজহার বলেন, ‘সকলের কাছ থেকে সুপরামর্শ গ্রহণ করে আমি ক্রিকেটের উন্নতিতে কাজ করতে চাই৷ জেলার ক্রিকেটের জন্যও একযোগে কাজ করা আমার লক্ষ্য৷’

আরও পড়ুন: মিনি ডার্বি হেরে খেতাব জয়ের স্বপ্ন ফিকে হল বাগানের

প্রাক্তন ক্রিকেট প্রাশাসক পিআপ মানসিংহ ছেলে বিক্রন মানসিংহ সহ-সভাপতির পদে মনোনয়ন জমা দেন৷ এছাড়া আজমল আসাদ সচিব পদে, পি শ্রীনিবাস যুগ্মসচিব পদে, জি শ্রীনিবাস কোষাধ্যক্ষ পদে এবং পি অনুরাধা কাউন্সিলর পদে নিজেদের দাবি পেশ করেছেন৷

আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন প্রত্যাহার করার শেষ দিন৷ তার পরে জানা যাবে হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রশাসক হওয়ার জন্য কারা আগ্রহ দেখিয়েছেন৷ আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।