কায়রো: করোনা আক্রান্ত লিভারপুল স্ট্রাইকার মোহামেদ সালাহ? মিশর ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের জারি করা এক বিবৃতি ঘিরে দানা বাঁধল রহস্য। শুক্রবার প্রাথমিকভাবে মিশর ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের তরফ থেকে জারি করা বিবৃতিতে লিভারপুল স্ট্রাইকারের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানানো হয়েছিল। কিন্তু পরে সেই বিবৃতি ওয়েবসাইট থেকে মুছে ফেলায় তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।

যদিও মনে করা হচ্ছে প্রোটোকল মেনে ফুটবলারের নাম গোপন রাখতেই মুছে ফেলা হয়েছে প্রাথমিক ওই বিবৃতি। মিশর ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে প্রাথমিকভাবে জারি করা বিবৃতিতে জানানো হয়েছিল, ‘জাতীয় দলের ফুটবলারদের সাম্প্রতিক যে লালারস পরীক্ষা করা হয়েছিল তার রিপোর্টে দেখা গিয়েছে আমাদের দলের ফুটবলার এবং লিভারপুল তারকা মোহামেদ সালাহ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যদিও তাঁর শরীরে কোনওরকম উপসর্গ নেই। তবে দলের অন্যান্য সদস্যদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।’ সালাহ আইসোলেশনে গিয়েছেন বলেও জানা যায় প্রাথমিকভাবে।

ইএফএ’র তরফ থেকে ওয়েবসাইটে জারি করা এই বিবৃতি কিছুক্ষণের মধ্যেই মুছে ফেলা হয়েছে। পরিবর্তে যে বিবৃতি জারি করা হয়েছে সেখানে আবার জানানো হয়েছে দলের তিন ফুটবলার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। শনিবার টোগোর বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে দলের ফুটবলারদের দ্বিতীয় দফার যে করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল সেই পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলে জানিয়েছে ইএফএ। পরিচয় গোপন রাখতেই প্রাথমিক বিবৃতি মুছে দিয়ে নয়া বিবৃতি জারি করা হয়েছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল। তবে সালাহর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর সত্যি হলে জাতীয় দলের পাশাপাশি তাঁর ক্লাব লিভারপুলের পক্ষেও তা বিরাট ধাক্কা।

বিগত কয়েক সপ্তাহে চোটের কারণে ক্লপের সংসারে অনিশ্চিত হয়েছেন ডিফেন্সের স্তম্ভ ভার্জিল ভ্যান ডাইক, ফ্যাবিনহো, মিডফিল্ডার আলেকজান্ডার আর্নল্ড। আন্তর্জাতিক বিরতিতে আরেক ডিফেন্ডার জো গোমেজ চোট পাওয়ার পর আপফ্রন্টে সালাহর করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা আগামী সপ্তাহে ম্যাচের আগে চিন্তার চওড়া ভাঁজ ফেলবে ক্লপের কপালে। গত মাসে আন্তর্জাতিক বিরতিতে দলের আরেক সদস্য জার্দান শাকিরির করোনা আক্রান্ত হওয়ারও খবর এসেছিল। কিন্তু পরবর্তী রিপোর্টে পুনরায় রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।

এর আগে সাদিও মানে, থিয়াগো আলকান্তারার মতো লিভারপুলের তারকা ফুটবলাররা আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। নবতম সংযোজন সালাহ। উল্লেখ্য, শনিবার ঘরের মাঠে আফ্রিকা নেশনস কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে টোগোর মুখোমুখি মিশর। মঙ্গলবার টোগোর মাটিতে অ্যাওয়ে খেলবে সালাহর মিশর।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.