শপথ নিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী সহ ৫৮ জন বিজেপি সাংসদ-

  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পদে শপথ নিচ্ছেন বাঙালি দেবশ্রী চোধুরি, রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র থেকে সাংসদ
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পদে শপথ নিচ্ছেন কৈলাশ চৌধুরী। বারমেডের সাংসদ তিনি।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পদে শপথ নিচ্ছেন প্রতাপ সরঙ্গী। ওডিশার বালেশ্বরের সাংসদ ইনি। দ্বিতীয় মোদী হিসাবে অনেকেই ডাকেন তাঁকে।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন রামেশ্বর তেলি। অসমের ডিব্রগড়ের দুবারের সাংসদ ইনি। একাধিকবার বিধায়কও ছিলেন তিনি।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন সোমপ্রকাশ। পঞ্জাবের হোশিয়ারপুরের সাংসদ। বিজেপির মন্ত্রিসভা নতুন মুখ।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন রেনুকা সিং। উচ্চমাধ্যমিক পাস। ছত্তিসগড়ের সাংসদ।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন বি মুরলীধরণ। মহারাষ্ট্র থেকে রাজ্যসভার সাংসদ তিনি।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন রতনলাল কাটারিয়া। হরিয়ানার অম্বালার সাংসদ তিনি। কুরুক্ষেত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তিনি। তিনবারের সাংসদ তিনি।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন নিত্যানন্দ রায়। মোদীর মন্ত্রিসভায় আরও এক নতুন মুখ। বিহারের উজিয়ারপুরের বিজেপির সাংসদ তিনি।
  • কর্নাটক থেকে মোদীর মন্ত্রিসভায় নয়া মুখ। সুরেশন্দ্র বসপ্পা। বেলগাওয়ের সাংসদ তিনি।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন অনুরাগ ঠাকুর। বিসিসিআইয়ের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন সঞ্জয় ধোত্রে। পেশায় ইঞ্জিনিয়র। মহারাষ্ট্রের অকোলার থেকে একাধিকবার সাংসদ।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন সঞ্জীব বালিয়ান। পরপর দুবার মুজফফরনগর থেকে সাংসদ তিনি। পেশায় পশু চিকিতসক।
  • শপথ নিলেন বাবুল সুপ্রিয়। দ্বিতীয়বারের জন্যে ফের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হচ্ছেন তিনি।

  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী পদে শপথ নিলেন সাধ্বী নিরঞ্জন জ্যোতি।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন রামদাস আঠাওয়াল। মহারাষ্ট্র থেকে রাজ্যসভার সদস্য।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন পুরুষোত্তম রুপালী। গুজরাত পাতিদার আন্দোলনের নেতা ছিলেন তিনি।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন জি কিষান রড্ডি। সেকেন্দ্রবাদের বিজেপি সাংসদ।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন রাওসাহেব দানবে। মহারাষ্ট্রের বিজেপি সভাপতিকে মন্ত্রী করছেন মোদী।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন কৃষ্ণপাল গুর্জব
  • দ্বিতীয়বারের জন্যে মোদীর মন্ত্রিসভায় এলেন ভি কে সিং।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করলেন অর্জুন রাম মেঘওয়াল।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করলেন অশ্বিনী চৌবে
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথবাক্য পাঠ করলেন ফগন সিং পুলস্তে।
  • মনসুখ মান্ডবিয়ার। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন হরদীপ সিং পুরী।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ বাক্য পাঠ করলেন রাজকুমার সিং। অচিরাচরিত শক্তির মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী ছিলেন তিনি। দ্বিতীয় দফায় ফের মন্ত্রী হচ্ছেন তিনি।

  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ বাক্য পাঠ করলেন প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ বাক্য পাঠ করলেন কিরেন রিজিজু
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন জিতেন্দ্র সিং। উত্তরপূর্বাঞ্চলের দায়িত্বে স্বাধীন প্রতিমন্ত্রী।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ বাক্য পাঠ করছেন ইন্দ্রজিত সিং। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হচ্ছেন শ্রীপদ নায়েক
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথবাক্য পাঠ করলেন সন্তোষকুমার গাঙ্গোয়ার। শ্রমমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী( স্বাধীন) হিসাবে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথগ্রহণ করলেন গজেন্দ্র শেখাবত
  • দ্বিতীয়বারের জন্যে কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ বাক্য পাঠ করছেন গিরিরাজ সিং। ক্ষুদ্র, ছোট এবং মাঝারি উদ্যোগের প্রতিমন্ত্রী (স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত) ছিলেন।

  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী পদে শপথ বাক্য পাঠ করলেন অরবিন্দ সাবন্ত
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ বাক্য পাঠ করলেন প্রহ্লাদ জোশী। শপথ বাক্য পাঠ করলেন মহেন্দ্রনাথ পান্ডে
  • শপথ বাক্য পাঠ করলেন ধর্মেন্দ্র প্রতাপ এবং আব্বাস নাকভি
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পদে শপথ নিলেন পিয়ুষ গোয়েল। রেলমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। এমনকি অর্থমন্ত্রকের বাড়তি দায়িত্বও সামলেছেন তিনি।
  • প্রকাশ জাভেড়কর। দ্বিতীয়বারের মন্ত্রিসভাতেও থাকলেন তিনি। কেশরীনাথ ত্রিপাঠির কাছে শপথবাক্য পাঠ করলেন তিনি। মানব-সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের দায়িত্বে ছিলেন তিনি।
  • দ্বিতীয়বারেও ফের মোদীর মন্ত্রিসভায় হর্ষবর্ষন। প্রথমবারে মোদীর মন্ত্রিসভায় একাধিক মন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন হর্ষবর্ষন।
  • মোদীর মন্ত্রিসভায় দ্বিতীয়বারের জন্যে জায়গা করে নিলেন স্মৃতি ইরানি
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন অর্জুন মুন্ডা। একাধিকবার ঝাড়খন্ড থেকে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন অর্জুন।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর পদে শপথ নিলেন রমেশ পোখরিয়াল।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রীর পদে শপথ নিলেন এস জয়শঙ্কর। বিদেশমন্ত্রকের সচিব হিসাবে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন তিনি।

  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর পদে শপথ টি গহলৌতের
  • আমেদাবাদে বাড়িতে বসে ছেলে নরেন্দ্র মোদীর শপথবাক্য পাঠ দেখছেন মা হীরা বেন।

  • হরসিমরত কউর বাদল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হতে রাষ্ট্রপতির কাছে শপথ বাক্য পাঠ করলেন। আগে ফুড-প্রসেসিং মন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন তিনি।
  • কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর কাছে কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ বাক্য পাঠ করলেন রবিশঙ্কর প্রসাদ। তথ্য-প্রযুক্তি এবং আইনমন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন তিনি।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন নরেন সিংহ তোমার। গ্রামোন্নয়ন এবং সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী ছিলেন নরেন সিংহ। দ্বিতীয়বারে ফের একবার মোদীর মন্ত্রী সভায় তিনি।
  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন রামবিলাশ পাসোয়ান। গত পাঁচ বছর আগে মোদীর মন্ত্রিসভায় কাজ করেছেন তিনি। খাদ্য এবং সরবরাহ মন্ত্রকের দায়িত্বে ছিলেন তিনি।

  • দ্বিতীয়বারে ফের কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হতে শপথগ্রহণ করলেন নির্মলা সীতারমন। গতবারে দেশের রক্ষামন্ত্রী হিসাবে কাজ করেছেন নির্মলা।
  • কেন্দ্রীয়মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন সদানন্দ গৌড়া। একটা সময় কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী হিসাবে কাজ করেছেন তিনি।
  • শপথ বাক্য পাঠ করছেন নিতিন গড়করি। প্রথমবারে সড়ক, পরিবহণ, জাহাজ এবং জল সম্পদ মন্ত্রকের দায়িত্বে ছিলেন তিনি।
  • মন্ত্রী হচ্ছে অমিত শাহ। গান্ধীনগর থেকে এই সাংসদকে শপথ বাক্য পাঠ করাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি।

  • মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেও সাংসদদের কোন মন্ত্রকের দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে তা এখনই জানানো হচ্ছে না।
  • শপথ বাক্য পাঠ করছেন রাজনাথ সিং

  • শপথ বাক্য পাঠ করলেন নরেন্দ্র মোদী। দ্বিতীয়বারের জন্যে প্রধানমন্ত্রী নমো।

  • শপথ বাক্য পাঠ করাতে মঞ্চে উপস্থিত হলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।
  • রাষ্ট্রপতি ভবনে উপস্থিত বাংলা থেকে যাওয়া শহিদের পরিবাররাও।
  • ডায়েসে পৌঁছলেন রাষ্ট্রপতি কোবিন্দের স্ত্রী।
  • রাষ্ট্রপতি ভবনে পৌঁছলেন নরেন্দ্র মোদী। কিছুক্ষণের মধ্যেই শপথ নেবেন তিনি।

  • মন্ত্রী হচ্ছে না সুষমা স্বরাজ। দর্শকের আসনে এসে বসলেন বিদায়ী বিদেশমন্ত্রী।

আর মাত্র কিছুক্ষণের অপেক্ষা। দ্বিতীয়বারের জন্যে প্রধানমন্ত্রী পদে শপথগ্রহণ করবেন নরেন্দ্র মোদী। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রায় ৬ হাজার অতিথি। গোটা বিশ্বের বিভিন্ন জায়গা থেকে অতিথিরা এসেছেন। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান উপলক্ষে রাইসিনা হিলসে সাজো সাজো রব।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।