নয়াদিল্লি: দেশের সেনাবাহিনীর জন্য বড় ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কার্গিল যুদ্ধের পরই বিশেষ কমিটি প্রস্তাব দিয়েছিল যে তিন বাহিনীর একজন প্রধান থাকা উচিৎ। কিন্তু ২০ বছরে কোনও সরকার সেই প্রস্তাব সফল করতে পারেনি।

অবশেষে স্বাধীনতা দিবসে সেই বহু প্রতীক্ষিত ঘোষণা করলেন নরেন্দ্র মোদী। তৈরি হবে নতুন পদ ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’। তিন বাহিনীর সমস্ত পলিসি ঠিক করবেন তিনি। ঠিক যেমন আমেরিকা বা অন্যান্য দেশে সমস্ত বাহিনীর একজন প্রতিনিধি থাকেন, সেরকম একটি পদই এবার তৈরি হতে চলেছে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে।

বৃহস্পতিবার সেই ঘোষণা করেছেন মোদী। তিনি বলেন, এই পদ তৈরি হওয়ার জন্য ভারতীয় বাহিনীর সংস্কার সম্ভব হবে। আগামিদিনে আরও উন্নতি করবে ভারতের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। তিনি বলেন, ‘আমাদের সনেবাহিনী আমাদের গর্ব। সব বাহিনীর মধ্যে সংযোগ আরও ভালো করতে লালকেল্লা থেকেই একতি বড় ঘোষণা করছি।’

মোদী বলেন, যুদ্ধের ধরন বদলাচ্ছে। বিশ্ব জুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থাতেও পরিবর্তন আসছে। তাই তিন বাহিনীর মধ্যে সংযোগ থাকা প্রয়োজন। তিনি উল্লেখ করেন, বিশেষজ্ঞরা দীর্ঘদিন ধরেই এই দাবি জানিয়ে আসছিলেন।

এছাড়াও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ৭০ বছরে ভারতের অর্থনীতি ২ ট্রিলিয়নে পৌঁছেছিল। আর পাঁচ বছরে ২ থেকে ৩ ট্রিলিয়ন হয়ে গিয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, রেল স্টেশন থেকে বিমান বন্দর, নির্মাণকাজের জন্য ১০০ লক্ষ কোটি টাকা আলাদা করা আছে।

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের কথা বলেন তিনি। বলেন, নাহলে ভবিষ্যতে অনেক সমস্যা দেখা দেবে। যারা ছোট পরিবারে বিশ্বাস করে, তারা দেশের উন্নয়নে নিজেদের অবদান রাখছেন। তাই এটাও একরকম দেশপ্রেম।

নয়া উদ্যোগ ‘জল-জীবন মিশন’ ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এতে থাকবে জল বাঁচানোর প্রক্রিয়া, সমুদ্রের জল কাজে লাগানোর প্রক্রিয়া। শিশুদের ছোট থেকেই জলের গুরুত্ব বোঝানো হবে। ৭০ বছরে জলের জন্য যে কাজ হয়েছে, আগামী পাঁচ বছরে তার চার গুণ কাজ করা হবে বলে জানান তিনি।