গান্ধীনগর: জনগণের রায়ে ফের দেশের মসনদে নরেন্দ্র মোদী৷ মুখে চোখে যুদ্ধ জয়ের তৃপ্তি৷ শুনিয়েছেন কর্তৃব্যে অবিচলতার পাঠ৷ সাফল্য শেষে রবিবার মায়ের পা ছুঁয়ে আশীর্বাদ নিলেন প্রধানমন্ত্রী৷

আরও পড়ুন: নয়া মোদী সরকারের সঙ্গে কথা বলতে প্রস্তুত পাকিস্তান

কথায় বলে দেশের সেবা মানে মায়ের সেবা৷ দেশ মায়ের সেবার দায়িত্ব পাওয়ার পরই তাই রবিবার নিজের মায়ের কাছে যান মোদী৷ এদিন সন্ধ্যায় তিনি পৌঁছন গান্ধীনগরে নিজের বাড়িতে৷ ছেলের অপেক্ষায় তখন বসে মা হীরাবেন৷

ছেলের সাফল্যে গর্বিত হীরাবেন৷ চোখের কোণে আনন্দাশ্রু, মুখে আবেগ৷ প্রধানমন্ত্রী ছেলেকে দখেই দুহাত বাড়িয়ে দেন বৃদ্ধা৷ মোদীও মাকে পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করেন৷ চেয়ে নেন আগামী দিনে দেশ পরিচালনার আশার্বাদ৷ এরপর কিছুক্ষণের জন্য মা ও ছেলের কথাও হয়৷

আরও পড়ুন: ভোট মিটতেই রাজ্য পুলিশে রাজীবকে ফেরালেন মমতা

বৃহস্পতিবারই জয় এসেছে৷ ৫৪২ এর মধ্যে বিজেপি একাই পেয়েছে ৩০৩ আসন৷ এনডিএর ঝুলিতে সাড়ে তিনশো পার৷ বুথ ফেরৎ সমীক্ষাতেই মিলেছিল এই ইঙ্গিত৷ ভোটের ফল প্রকাশের দিন প্রথম থেকেই এগিয়ে ছিল গেরুয়া শিবির৷ খবর পেতেই ঘরের বাইরে বেড়িয়ে এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মা হীরাবেন৷ খুশি ভাগ করে নেন পরিবারের অন্যন্যদের সঙ্গে৷

আগামী ৩০ মে দ্বিতীয়বারে জন্য প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন মোদী৷ সঙ্গে তাঁর পারিষদরা৷ আগামীকাল ২৭ মে প্রধানমন্ত্রী মোদী কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরে যাবেন। সেখানে তিনি পূজার্চনা করবেন। পুজো করার পর প্রধানমন্ত্রী মোদী লালপুর এরিয়ায় ট্রেড ফ্যাশিলেটেশন সেন্টারে যাবেন। সেখানে তিনি বিজেপির কর্মীদের সম্বোধিত করবেন৷ পরে প্রধানমন্ত্রীর রোড শো রয়েছে নিজের লোকসভা কেন্দ্র বারাণসীতে৷ যেখান থেকে এবারে ৬ লক্ষ ৭৬ হাজারেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে৷

আরও পড়ুন: ৩০শে মে শপথ মোদীর, ট্যুইট রাষ্ট্রপতি ভবনের

এদিন গুজরাটের আমেদাবাদে পৌঁছে মোদী চলে যান সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের মূর্তিতে শ্রদ্ধা জানাতে। মোদীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এবং গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানী। এরপর গান্ধীনগরে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী৷ তাঁকে দেখতে মানুষের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত৷