স্টাফ রিপোর্টার, বোলপুরঃ  বাংলায় ফের নির্বাচনী প্রচারে এসে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একহাত নিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুধু মমতাকেই নয়, নাম না করে বীরভূমের বেতাজ বাদসা অনুব্রত মন্ডলকেও একহাত নিলেন প্রধানমন্ত্রী। বললেন, ‘গুরুদেবের শান্তিনিকেতন এখন গুণ্ডাদের দখলে। তাঁদের কারোও নাকি আবার শারীরিক সমস্যাও আছে।’ অনুব্রত মন্ডলের অক্সিজেন না যাওয়ার একটা সমস্যার কথা জানিয়েছিলেন খোদ মমতাই। আর সেই বিষয়টি নিয়েই কটাক্ষ করলেন নমো।

এখানেই শেষ নয়। মোদী সভামঞ্চে দাঁড়িয়ে বলেন, কবিগুরুর শান্তিনিকেতন আজ অশান্ত। তৃণমূলের গুন্ডাবাহিনীই আজ অশান্তিনিকেতন করে তুলেছে বলে তোপ দাগেন তিনি। একই সঙ্গে মোদী আবারও অভিযোগ করেন, ‘তোলাবাজি ছাড়া কোনও কাজ পশ্চিমবঙ্গে সম্ভব হয় না। অনুপ্রবেশকারীদের ঢোকানো হয়। বোমা তৈরির স্বাধীনতা রয়েছে। কিন্তু সাধারণ মানুষ নুন্যতম সুযোগ সুবিধা থাকা বঞ্চিত বলে অভিযোগ তাঁর। তবে ক্ষমতায় আসলে কবিগুরুর এই স্থানকে পর্যটনদের জন্যে সুন্দর করে সাজিয়ে তোলা হবে বলে মন্তব্য প্রধানমন্ত্রীর।

বোলপুর প্রচারসভা থেকে মোদী আশা প্রকাশ করেন, ‘প্রথম তিন দফার ভোটগ্রহণের পর যে রিপোর্ট আসছে, তাতে স্পষ্ট, দিদির সূর্য পশ্চিমবঙ্গে অস্ত যেতে চলেছে।’ সেইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আপনাদের ভরসা দিতে চাই, টিএমসি-র গুন্ডাগিরি থেকে বাংলাকে মুক্ত করব। ২৩ মে নির্বাচনের ফলঘোষণা হবে। তখন ‘ফির একবার মোদী সরকার।’