রাষ্ট্রসংঘ: অতিমারীর বিরুদ্ধে লড়াই করতে ভ্যাক্সিন দিয়ে গোটা বিশ্বকে সাহায্য করবে ভারত। রাষ্ট্রসংঘে বক্তব্য রাখতে গিয়ে একথা বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আগে থেকে রেকর্ড করা সেই বক্তব্য শনিবার শোনানো হল রাষ্ট্রসংঘে। আর সেখানে ভারতের ভ্যাক্সিন তৈরির বিষয়ে কথা বলেন মোদী।

একইসঙ্গে অতিমারীর বিরুদ্ধে লড়াই কততেব রাষ্ট্রসংঘকে আরও বেশি করে তৎপর হওয়ার কথা বলেন মোদী।

এদিন তিনি বলেন, ‘ভারতই বিশ্বের সবথেকে বড় ভ্যাক্সিন উৎপাদনকারী দেশ। তাই আজ গ্লোবাল কমিউনিটিকে আশ্বাস দিয়ে বলতে চাই, এই ক্রাইসিসে পুরো মানবজাতিকে সাহায্য করতে ভ্যাক্সিন উৎপাদন ও ডেলিভারি করবে ভারত।’

তিনি জানিয়েছেন, ভারত ফেজ ৩ ট্রায়ালের দিকে এগোচ্ছে। ১৫০ টি দেশে চিকিৎসা সংক্রান্ত সাহায্য করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন মোদী।

মোদী এদিন আরও বলেন, ভারত সবসময় মানবজাতির স্বার্থের কথা ভেবে এসেছে। নিজের স্বার্থকে প্রাধান্য দেয়নি। ভারতীয় দর্শনের নীতি এই পথেই বরাবর চলে এসেছে। প্রতিবেশী আগে নীতি থেকে একাধিক বিষয়, আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও বৃদ্ধির জন্য সমস্ত অঞ্চলে, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গির ক্ষেত্রে সর্বদা মানবজাতির কল্যাণের জন্য ভারত করেছে। নিজের স্বার্থ দেখেনি।

এক দেশের প্রতি ভারতের বন্ধুত্বের যে কোনও ভঙ্গি কোনও তৃতীয় দেশের বিরুদ্ধে নির্দেশিত নয়। ভারত যখন তার বিকাশের অংশীদারিত্বকে শক্তিশালী করে, তখন তা অংশীদার দেশকে নির্ভরশীল বা অসহায় করে তোলার কোনও জঘন্য উদ্দেশ্য নিয়ে নয়।

আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে ভারত রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসাবেও তার দায়িত্ব পালন করবে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।