নয়াদিল্লি: ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী পদে জয়ী হওয়ার পর থেকেই সংবাদপত্রে বহুবার জায়গা করে নিয়েছিলেন বিপ্লব কুমার দেব৷ তবে বিগত বেশ কিছুদিনে নানা প্রকার বিতর্কিত মন্তব্য করে তিনি এখন সংবাদের শিরোনামে৷ বিপ্লব কুমার দেবের বিতর্কিত মন্তব্য এখন বহু চর্চিত বিষয়৷ আর সেইসব বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্যই তাঁকে শমন পাঠালেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷

রবিবার এই প্রসঙ্গে একজন বরিষ্ঠ বিজেপি নেতা জানান, আগামী ২ মে দিল্লিতে একটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে৷ বিপ্লব কুমার দেবকে সেই বৈঠকে উপস্থিত থাকার নির্দেশও দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷ পাশাপাশি ওই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ-ও৷ তিনি আরও জানান, ওই বৈঠক আয়োজনের প্রধান বিষয় বিপ্লব কুমার দেবের বিতর্কিত মন্তব্যের কারণ খুটিয়ে দেখা৷ এই ধরনের মন্তব্য কেবল বিতর্কিত নয়, দলের ভাবমূর্তিতেও আঘাত আনে এই ধরনের মন্তব্য৷

একটি সভায় বিল্পব কুমার দেব বলেছিলেন, মহাভারতের যুগেও ইন্টারনেট এবং স্যাটেলাইট পদ্ধতির চল ছিল৷ সঙ্গে ১৯৯৭ সালে মিস ওয়ার্ল্ড ডায়ানা হেডেনকে নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি৷ এই মন্তব্যের পর থেকেই সংবাদপত্র ও সোশ্যাল দুনিয়ায় বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়৷ তবে এখানেই শেষ নয়৷ ত্রিপুরার সদ্য আগত মুখ্যমন্ত্রী আরও তরুণদের নিয়েও মন্তব্য করেছেন৷ তিনি বলেছেন, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের সিভিল সার্ভিসে চাকরী পাওয়া একেবারেই উচিত নয়৷ সিভিল সার্ভিস পাওয়ার যোগ্যতা কেবল সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদেরই আছে৷

বিপ্লব কুমার দেব যুব সমাজকে কটাক্ষ করে বলেন, সরকারি চাকরির জন্য যে সব তরুণ রাজনৈতিক দলের মদত চায়, তাদের চাকরি করার পরিবর্তে পানের দোকান খুলে বসা উচিৎ৷ সঙ্গে চাইলে দুধের ব্যবসা ও গরু পালনের কাজও করতে পারেন তারা৷ এই মন্তব্যগুলির পরই তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয় যুব সমাজের মধ্যে৷ তাদের দাবি, এধরনের মন্তব্য করা অনৈতিক৷ প্রশাসনের উচিৎ এই মন্তব্যগুলির যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া৷

সাধারণ মানুষ নয়, বিজেপির বরিষ্ঠ নেতারাও অক্ষুণ্ণ হয়েছেন এই ধরনের মন্তব্যে৷ তাঁদের দাবি, একজন মুখ্যমন্ত্রীর থেকে এই ধরনের মন্তব্য কাম্য নয়৷ বিপ্লব কুমার দেব এধরনের বিতর্কিত মন্তব্য কেন করেছেন তা খতিয়ে দেখবে প্রধানমন্ত্রী৷ নরেন্দ্র মোদীর কাছে বিপ্লব দেবকে জবাব দিতেই হবে৷