কলকাতাঃ রাজ্যের দাবি-দাওয়া বুঝে নিতে দিল্লি উড়ে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামীকাল বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা রয়েছে তাঁর। আর এই বৈঠকের আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি যাত্রা নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করলেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। বিধানসভায় সুজনবাবু বলেন, কীভাবে সেটিং করতে হয় তা ভালোভাবে জানেন মোদী-মমতা।

শুধু তাই নয়, সিপিএম এই নেতার মতে, যিনি কিনা প্রধানমন্ত্রীকে কোমরে দড়ি দিয়ে নিয়ে আসবে বলেছিলেন। এখন নিজের কোমরে দড়ি পরার সময় এসেছে। আর তাই এমন সঙ্কটকালে মোদীর দ্বারস্থ হয়েছেন বলে নাম না করে তৃণমূল নেত্রীকে কটাক্ষ সিপিএম নেতার।

সিবিআইয়ের সঙ্গে কার্যত লুকোচুরি খেলছেন রাজীব কুমার। কলকাতা হাইকোর্ট থেকে রক্ষাকবচ উঠে যেতেই খোঁজ নেই কলকাতার প্রাক্তন নগরপাল। এই বিষয়েও মুখ খুলেছেন সুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেন, “খারাপ লাগছে একজন ভালো অফিসারের এমন অবস্থা হল। তবে যে অপরাধী ধরবে, সেই কিনা এখন দৌড়ে বেড়াচ্ছে বলে মন্তব্য সুজনের।

শুধু রাজীব ইস্যুতেই মন্তব্য করা নয়, প্রশাসনিক উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের উদ্দেশ্যেও কার্যত সাবধানিবানী ছুঁড়ে দেন সুজন। তিনি বলেন, যারা এখনও মুখ্যমন্ত্রীর কথা মেনে চলেন, তাঁরা এখনই সতর্ক হয়ে যান। না হলে আগামীদিনে রাজীবের মতোই পরিণতি হতে পারে বলে কটাক্ষ করেন যাদবপুরের প্রাক্তন এই বিধায়ক।

প্রসঙ্গত, গত লোকসভা নির্বাচনে প্রচারে গিয়ে একাধিকবার মোদীকে আক্রমণ শানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সিবিআই-ইডি ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। এমনকি খোদ দেশের প্রধানমন্ত্রীকে কোমরে দড়ি বেঁধে ঘোরানোর হুমকিও দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। যা নিয়ে তীব্র বিতর্ক তৈরি হয়। এবার সেই বিষয়টিকে তুলে এনেই মুখ্যমন্ত্রী দিল্লি যাত্রাকে এভাবে কটাক্ষ করলেন সুজন চক্রবর্তী।