কলকাতা : করোনা মোকাবিলায় প্রথম থেকেই তৎপর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই এবার মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসায় রাজ্যের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। জাতীয় মহামারিতে কেন্দ্র এবং রাজ্যগুলিকে একসঙ্গে করোনা মোকাবিলা করতে হবে। মন কি বাতে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বিভিন্ন বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বন্দ্ব থাকলেও এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজ করছে রাজ্য সরকার। শুধু তাই নয়, যেভাবে মুখ্যমন্ত্রী ‘মানবিক’ ভাবে কাজ করে চলেছেন তাতে খুশি রাজ্যপাল।

পশ্চিমবঙ্গে আসার পর থেকে রাজ্য সরকারের সঙ্গে বার বার সংঘাতে জড়িয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। এমন কি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও সং‌‌‌ঘাতে জড়িয়েছেন তিনি । এবার সেই মুখ্যমন্ত্রীরই প্রশংসা করলেন রাজ্যপাল। রবিবার টুইট করে রাজ্যাপাল বলেন, রাজ্য এবং কেন্দ্র যে ভাবে করোনা মোকাবিলায় বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে তা প্রশংসনীয়।

তিনি লেখেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করোনা মোকাবিলায় উদাহরণ তৈরি করেছেন। রাজ্যকে পরীক্ষার জন্য ১০ হাজার কিট পাঠানো হয়েছে কেন্দ্রের তরফ থেকে। রাজনীতি ছেড়ে কঠিন সময়ের জন্য লড়াই করতে হবে’। গোটা দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। রবিবার সকাল পর্যন্ত দেশে ১০৪০ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫।

অন্যদিকে করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে টানা ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। লকডাউন চলাকালীন বন্ধ রয়েছে গণপরিবহন মাধ্যম, সরকারি-বেসরকারি অফিস সহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান। লকডাউন দেশবাসীর বিভিন্ন ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে বলে মেনে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। লকডাউনের জন্য তাই দেশবাসীর কাছে ক্ষমাপ্রার্থী প্রধানমন্ত্রী। রবিবার মন কি বাত অনুষ্ঠানে আরও একবার সে কথা জানান নরেন্দ্র মোদী।