কলকাতাঃ  আর মাত্র কিছুক্ষণ। ঠিক বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ কলকাতা বিমানবন্দরে নামবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিমান। যেখানে রাজ্য সরকারের তরফে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। অন্যদিকে বঙ্গ বিজেপির তরফ থেকেও প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানানো হবে। ইতিমধ্যে কলকাতা বিমানবন্দরে পৌঁছে গিয়েছেন বঙ্গ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। বিমানবন্দরে উপস্থিত থাকবেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, রাহুল সিনহা সহ দুই সাংসদ অর্জুন সিং ও শান্তনু ঠাকুর ।

অন্যদিকে, বিক্ষোভের আশঙ্কায় প্রতি মুহূর্তে রুট বদল হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। জানা যাচ্ছে, বিক্ষোভের আশঙ্কায় বিমানবন্দর থেকে সেনার হেলিকপ্টারে রেস কোর্সে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত থাকবেন বিজেপি পাঁচজন সাধারণ সম্পাদক। জানা যাচ্ছে সেখানে থাকবেন রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়, সুব্রত চট্টোপাধ্যায়, প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়, সায়ন্তন বসু ও রথীন্দ্রনাথ বসু।

জানা যাচ্ছে, এরপর রাজভবনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গেও দেখা করবে রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। সাংসদ তথা রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের একটি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করবেন বলে জানা গিয়েছে। সেই দলে মুকুল রায়ও থাকতে পারেন বলে জানা যাচ্ছে। ইতিমধ্যে এই বিষয়ে পিএমও থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা যাচ্ছে, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন লাঘু করার জন্যে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে স্বাগত জানাবেন রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। পাশাপাশি এনআরসি লাঘু করা কেন প্রয়োজন বাংলায়, সেই সংক্রান্ত একটি রিপোর্টও রাজ্য বিজেপি’র তরফে প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানা যাচ্ছে। পাশাপাশি, এই আইনের সমর্থনে প্রধানমন্ত্রীকে যে দেড় কোটি পোস্ট কার্ড পাঠানো হয়েছিল তার একটি স্মারক পোস্ট কার্ডও একটি প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে দেওয়া হবে বলে বিজেপির তরফে জানা গিয়েছে।