হলদিয়া: আর কিছুক্ষণের মধ্যেই হলদিয়ায় পা রাখছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ তার সফর উপলক্ষে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে হলদিয়া৷

শনিবার রাতেই রাজ্য পুলিশের ডিআইজি ডি সলোমন নেসাকুমার ও পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক বিভু গোয়েল সভাস্থল পরিদর্শন করেন৷ নিরাপত্তার কারণে মূলমঞ্চের সামনে ৩০ ফুট অংশ ফাঁকা রাখা হয়েছে৷ এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে প্রায় ৪ হাজার পুলিশ৷ গোটা চত্বর ঘিরে রয়েছে ত্রিস্তর নিরাপত্তাবলয়৷

সরকারি অনুষ্ঠানের পাশাপাশি এদিন হলদিয়ায় প্রধানমন্ত্রী একটি সভা করবেন৷ ওই সভা উপলক্ষে গেরুয়া পতাকায় মুড়িয়ে ফেলা হয়েছে সভাস্থল৷ ফ্লেক্স লাগানো হয়েছে৷ রয়েছে ৩০ ফুট উচু মোদীর ২টি কাটআউট৷ এছাড়া ৪ টি হ্যাঙ্গার লাগানো হয়েছে৷ থাকছে ২০ টি এলসিডি স্ক্রিন৷ বিজেপির দাবি প্রধানমন্ত্রীর দলীয় সভায় প্রায় ২ লক্ষ কর্মী-সমর্থকদের জমায়েত হবে৷ তাছাড়া দেড় লক্ষ মানুষের বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷

আর কিছুক্ষণের মধ্যেই রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জানা গিয়েছে, দুপুর ৩টে ১০-এ কলকাতায় নামবে তাঁর বিমান। সেখান থেকে কপ্টারে চড়ে যাবেন হলদিয়ায়।সেখান থেকে কপ্টারে চড়ে যাবেন হলদিয়ায়। প্রথমে হলদিয়া হেলিপ্যাড গ্রাউন্ডে রাজনৈতিক সভায় অংশ নেবেন নরেন্দ্র মোদি।

এরপর পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন তিনি। বিপিসিএলের এলপিজি টার্মিনাল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। ধোবি-দুর্গাপুর প্রাকৃতিক গ্যাসলাইনের উদ্বোধন করবেন তিনি।হলদিয়ার রানিচকে একটি রেল ওভারব্রিজের উদ্বোধন করার কথা মোদির। এরপর সন্ধেয় কলকাতা ফিরে রাতেই দিল্লি উড়ে যাবে তাঁর বিমান।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর সফরের আগেই তাঁর নামাঙ্কিত ফ্লেক্স ছিঁড়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটল।মোদীর সভাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ফ্লেক্স ও ব্যানারে মুড়ে ফেলা হয়েছে। শনিবার রাতে সেই সমস্ত ফ্লেক্স ব্যানার নষ্ট করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দকুমার জাতীয় সড়ক সংলগ্ন এলাকায়।

এই এলাকায় মোদীর সভার জন্য স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা বেশকিছু ফ্লেক্স লাগায়। সেই সমস্ত ফ্লেক্স তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা রাতের অন্ধকারে ছিঁড়ে দেয় বলে তাদের অভিযোগ। যদিও তৃণমূল অভিযোগ মানতে নারাজ।

অন্যদিকে বিজেপির প্রস্তুতি সভায় হামলার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে নন্দীগ্রামের কমলপুরে৷ আহত হয়েছেন ৫ বিজেপি কর্মী৷ বিজেপির তরফে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে৷

বিজেপির অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর সভায় যাওয়া নিয়ে দলের প্রস্তুতি বৈঠক চলছিল নন্দীগ্রামে৷ সেই সময় রড-বাঁশ-লাঠি নিয়ে হামলা চালায় তৃণমূল কর্মীরা৷ তাতে বিজেপির ৫ জন কর্মী আহত হয়েছেন৷ তাদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক৷ আহতদের তমলুক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.