নয়াদিল্লি: দলিতের সঙ্গে অসবর্ণ বিবাহ করলেই ২.৫ লক্ষ টাকা পাবেন পাত্র বা পাত্রী৷ অসবর্ণ বিবাহে আরও উদ্বুদ্ধ করতেই এমন পদক্ষেপ নেয় মোদী সরকার৷ গত কয়েক বছর আগে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মোদী সরকার। মূলত কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে প্রতিটি অসবর্ণ বিবাহ ‘Dr Ambedkar scheme for social Integration through inter-caste marriage’-এর সুবিধা আওতায় পড়বে৷ এই স্কিম অনুযায়ী প্রতিটি অসবর্ণ বিবাহে ২.৫ লক্ষ টাকা দেওয়া হবে, কিন্তু পাত্র বা পাত্রীর মধ্যে একজনকে দলিত হতেই হবে৷

প্রসঙ্গত, এর আগে এমন জুটি তখনই এই পরিমাণ অর্থ পেত, যদি তাদের বার্ষিক আয় ৫লক্ষ টাকার কম হত৷ তবে এখন ৫লক্ষের বেশি বার্ষিক আয় হলেও দম্পতি এই অর্থ পেতে পারে বলে জানানো হয়েছে৷ হিন্দু বিবাহ আইন অনুযায়ী দম্পতির এটি প্রথম বিবাহ হতে হবে, সেই সঙ্গে বিয়ের একবছরের মধ্যেই এ সংক্রান্ত প্রস্তাব পেশ করতে হবে৷

পড়ুন: ‘অ্যান্টি রেপ জিন্স’ তৈরি করে নজির বারাণসীর দুই ছাত্রীর

২০১৩ সালে এই স্কিম শুরু হয়েছিল৷ এই প্রকল্পের ভিত্তিতে প্রতি বছর অন্তত ৫০০ এমন জুটিকে এই অর্থ দেওয়ার লক্ষ্য ছিল সরকারের৷ পাঁচ লক্ষ বার্ষিক আয় পর্যন্ত এই স্কিমের সুবিধা পাওয়া যেত৷ তবে অনেক রাজ্যে এই ধরনের স্কিম থাকলেও বার্ষিক আয়ের ক্ষেত্রে কোনও নির্দিষ্ট নিয়ম ছিল না৷ তাই মোদী সরকারের পক্ষ থেকে এক্ষেত্রেও বার্ষিক আয়ের নিয়মটি তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷

বছরে ৫০০ টার্গেট হলেও ৫ দম্পতিই এই অর্থ পায় ২০১৪-১৫সালে৷ ২০১৫-২০১৬ সালে ৫২২ দম্পতির মধ্যে ৭২দম্পতি এই স্কিমের আওতায় আসে৷ ২০১৬-২০১৭ সালে ৭৩৬টি আবেদনের মধ্যে থেকে ৪৫জন এই সুবিধা পায় বলে জানা যায়৷ ২০১৭-১৮ সালে এখন পর্যন্ত ৪০৯টি আবেদন জমা পড়েছে, যার মধ্যে ৭৪টি আবেদন এই স্কিমের আওতায় এসেছে৷ ২০১৯ সালে বেশ কিছু আবেদন জমা পড়েছে। সেগুলি খতিয়ে দেখে সেই টাকা দেওয়া হবে বলে জানা যাচ্ছে।