নয়াদিল্লি: লোকসভার ‘গোল্ডেন সেশনে’ পাশ হয়েছে একের পর এক গুরুত্বপূর্ণ বিল। কাশ্মীর থেকে স্পেশাল স্টেটাস তুলে নেওয়া কিংবা তিন তালাক রদ করার মত বিল পাশ করে কার্যত নজির গড়েছে মোদী সরকার। এবার আরও গুরুত্বপূর্ণ বিল আনা হবে বলে সূত্রের খবর।

‘জি নিউজ’-এ প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, এবার ধর্মান্তকরণ নিয়ে একটি বিল আনতে চলেছে কেন্দ্র। লোকসভার আগামী অধিবেশনে এই বিল পেশ হবে বলে জানা গিয়েছে। এই বিষয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা শুরু হয়েছে। এই বিল আনলে জোর করে ধর্মান্তকরন বন্ধ করা যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।
এদিকে শুক্রবার রাতেই কাশ্মীর পুনর্গঠন বিলে সই করেন রাষ্ট্রপতি। শুক্রবার তিনি ওই বিলে সম্মতি দিয়ে সই করেছেন। ফলে, এবার কাশ্মীর পুনর্গঠন আইন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আরও পড়ুন: ফের গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলেন কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা

গত সোমবার রাজ্যসভায় প্রথম এই বিলের প্রস্তাব পেশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সেদিনই রাজ্যসভায় পাশ হয় এই বিল। বুধবার পাশ হয় লোকসভায়।

৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের ফলে জম্মু, কাশ্মীর ও লাদাখে সাধারণ আইন প্রতিষ্ঠিত হবে, যা দেশের বাকি রাজ্যগুলিতে প্রতিষ্ঠিত৷ জম্মু, কাশ্মীর ও লাদাখে এবার থেকে জমি বা বাড়ির মত সম্পত্তি কিনতে পারবেন দেশের অন্যান্য প্রান্তের যে কোনও ব্যক্তি৷ কাশ্মীরে এবার সরকারি চাকরি পেতে পারবেন অন্য রাজ্য থেকে আসা মানুষও৷ জম্মু, কাশ্মীর ও লাদাখের মহিলারা অন্য রাজ্যের বাসিন্দাকে বিয়ে করলে, তাঁর অধিকার হারাবেন না৷

আরও পড়ুন: প্রতিষ্ঠিত হল আইন, কাশ্মীর পুনর্গঠন বিলে সই করলেন রাষ্ট্রপতি

জম্মু কাশ্মীরের জন্য কোনও আলাদা পতাকা থাকবে না৷ এবার থেকে ভারতের জাতীয় পতাকার তলায় চলে এল জম্মু কাশ্মীর৷ ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের ফলে এবার থেকে জম্মু, কাশ্মীর, লাদাখের প্রতিরক্ষা, বিদেশনীতি, অর্থ ও যোগাযোগ সংক্রান্ত ক্ষেত্রে কেন্দ্র সরকারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত হবে৷ কেন্দ্রের হাতে এবার কাশ্মীরে আর্থিক জরুরি অবস্থা জারির ক্ষমতা এল৷

এর আগে পাশ হয়েছে তিন তালাক বিল। দুটি ক্ষেত্রেই বিরোধীরা সরব হওয়া সত্বেও বিল পাশ হয়েছে লোকসভায়।