সিমলা : ২০১৪ সালে বেশ কিছু ধুয়ো তুলে ক্ষমতায় এসেছিলেন নরেন্দ্র মোদী৷ নিজের কোনও প্রতিশ্রুতিই রাখেন না৷ এবার ২০১৯ সালে তিনি বিদায় নেবেন রাফায়েল এজেন্ট হয়ে৷ হিমাচল প্রদেশের বিলাসপুরে এক জনসভায় এভাবেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বিঁধলেন কংগ্রেস নেতা নভজ্যোত সিং সিধু৷

তিনি বলেন, রাহুল গান্ধী এবার কড়া টক্কর দেবেন মোদীকে৷ প্রতিপক্ষকে দুর্বল ভাবলে ভুল করবেন মোদী৷ রাহুল গান্ধীকে কংগ্রেসের কামান আর নিজেকে একে ৪৭ বলে ব্যাখ্যা করেন সিধু৷ নরেন্দ্র মোদীকে সরাসরি বিতর্কে বসার আহ্বান জানিয়ে সিধু বলেন না নিজে দুর্নীতি করব, না কাউকে করতে দেব-এই ইস্যুতে বিতর্ক শুরু হোক৷ যদি তিনি হেরে যান, রাজনীতি ছেড়ে দেবেন বলে দাবি করেন সিধু৷

এর আগে রাফায়েল নিয়ে বিরোধীদের আক্রমণে সংসদ ও বাইরে কোণঠাসা হয়ে পড়েছিল মোদী সরকার৷ এরই মাঝে প্রকাশ্যে আসে রাফায়েল নথি চুরির বিষয়টি৷ প্রতিক্ষা দফতর থেকে রাফাল সংক্রান্ত নথি চুরি গিয়েছে বলে জানা যায়৷ শোরগোল পড়ে যায় দেশজুড়ে৷ মোদী সরকারকে সমালোচনা বিদ্ধ করতে থাকে বিরোধীরা৷

সুপ্রিম কোর্টে অ্যাটর্নি জেনারেল দাবি করেন, বেআইনি ভাবে রাফায়েল নথির ছবি করা হয়েছে। এতে সরকারি গোপনীয়তাকে লঙ্ঘিত হয়েছে। তাই ওই নথিকে যেন ‘প্রামাণ্য নথি’ হিসেবে বিবেচনা করা না হয়৷ কিন্তু মোদী সরকারকে ধাক্কা দিয়ে কেন্দ্রের সেই আপত্তি খারিজ করে দেয় সর্বোচ্চ আদালত।

উল্লেখ্য, ১৯শে মে হিমাচল প্রদেশের চারটি লোকসভা আসনে ভোট৷ যার প্রচারে এসে মোদীকে আক্রমণ করেন প্রাক্তন ক্রিকেটার ও রাজনীতিক সিধু৷