কলকাতা: মঞ্চ থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বেনজির আক্রমণ শাণালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে৷ বৃহস্পতিবার বাঁকুড়ার কমলাডাঙায় নির্বাচনী জনসভায় দাঁড়িয়ে মোদী বললেন, দিদি তো প্রধানমন্ত্রীকে প্রধানমন্ত্রী স্বীকার করছেন না৷ খোলাখুলি বলছেন, মোদী প্রধানমন্ত্রী নন৷ অথচ দেখুন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কী গর্ববোধ করেন দিদি৷ বিদেশি অভিনেতাদের জন্য কত দরদ দেখাচ্ছেন৷ কিন্তু সেনা শহিদদের প্রতি কোনও দরদ নেই৷ সার্জিকাল স্ট্রাইকের পর সারা দেশ সেনার কীর্তিতে গর্ববোধ করেছে৷ কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ সরকার চুপচাপ ছিল৷ সার্জিকাল স্ট্রাইকের প্রতি কোনও সম্মান দেখায়নি৷ সম্প্রতি মমতা মোদীকে এক্সপায়েরি পিএম বা মেয়াদোতার্ণ প্রধানমন্ত্রী বলে ডাকা শুরু করেছেন{ বিজেপির মতে তা অসাংবিধানিক৷

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্ক কী তা নিয়ে বাংলার ভোটারদের খালি চোখে দেখিয়ে দিতে বিজেপি সচেষ্ট৷ প্রথম ঘটনার সূত্রপাত পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ার বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার এয়ারস্ট্রাইকের পর দেশজোড়া আলোড়নের মাঝেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য৷ ওই বিমানহানায় পাকিস্তানে কতজন জঙ্গি মারা গিয়েছেন তার প্রমাণ এবং হিসাব চান মমতা৷ ওদিকে ভারত সারা বিশ্বে জানিয়েছে বিমানহানায় পাকিস্তানের জইস-ই-মহম্মদের জঙ্গি ক্যাম্পে ভারি ক্ষতি হয়েছে৷

পুলওয়ামার মতো ফিরতি আক্রমণের লক্ষে যে জঙ্গিরা তৈরি হচ্ছিল, তারা সকলেই মারা গিয়েছেন৷ এদিকে পাকিস্তানি মিডিয়া প্রচার করতে থেকে ভারত মিথ্যা কথা বলছে৷ সেই মুহূর্তে ভারতের এর প্রদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মমতার বক্তব্যকে ফলাও করে প্রচার করে পাক মিডিয়া৷ সারা দেশেই সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়৷ বিজেপিও মমতার ওই কাজকে হাতিহার করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রচার জোরদার করে৷ বাঁকুড়ার কমলাডাঙায় নির্বাচনী জনসভায় মোদী যেন আবার সেই প্রসঙ্গতেই খোঁচা দিবেন৷

লোকসভায় প্রচারের শুরু থেকেই বিজেপি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাকিস্তান ইস্যুকে বিঁধছে মোদী এবং বিজেপির অন্যান্য নেতৃত্বরা৷ বিজেপি প্রচার করেছে, একটি বিশেষ ভোটব্যাংক ধরে রাখতেই দিদি পাকিস্তান প্রীতি দেখান৷ দেশ তার কাছে বড় নয়৷ বড় হল ভোট ব্যাংক৷ পুলওয়ামার জঙ্গি হামলায় রাজ্য থেকে শহিদদের অর্থসাহায্য তেও কার্পণ্য করেছেন মমতা – অভিযোগ তুলেছে বিজেপি৷ রাজ্যে এনআরসি এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে ব্যাপক প্রচার চালাচ্ছে বিজেপি৷ বেআইনি বাংলাদেশি মুসলমানদের দেশ থেকে তাড়িয়ে দিতে গেরুয়া শিবির প্রতিশ্রুতিবদ্ধ৷ বাংলার জনতাকে নির্বাচনের আগে এনআরসি এবং নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল কথা দিয়ে রেখে মোদী সরকরা৷ এই অবস্থায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণ এবং ভোটব্যাংকের রাজনীতি বিজেপি শুরু করেছে৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।