নয়াদিল্লি: প্রতারণার শিকার দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষেরা। এমনই মনে করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দ্বিতীয়বারের জন্য দেশের শাসনভার হাতে পাওয়ার পরে বিরোধীদের আক্রমণ করে এই মন্তব্য করেছেন মোদী।

সংখ্যালঘু বিরোধী হিসেবে বিজেপির দুর্নাম রয়েছে। কিন্তু মোদী দাবি করেছেন যে ভোট ব্যাংকের স্বার্থে বিরোধীরা কেবল সংখ্যালঘুদের ব্যবহার করেছে এবং তাদের ঠকিয়েছে। এই চিরাচরিত ধারার শেষ করার বার্তা দিয়েছেন মোদী।

আরও প্যড়ুন- গঙ্গারামপুরে কর্মীদের উপর হামলার ঘটনায় বিক্ষোভ বিজেপির

শনিবার সংসদের সেন্ট্রাল হলে এনডিএ শিবিরের জয়ী সদস্যদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন মোদী। সেখানেই দেশের সংখ্যালঘুদের বিষয়ে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, “গরিব এবং সংখ্যালঘুরা নানাভাবে প্রতারিত হচ্ছেন। তাঁদের শিক্ষা বা স্বাস্থ্যের দিকে নজর দেওয়া যেতো যা হয়নি।” এনডিএ শিবিরের সাংসদদের উদ্দেশ্যে মোদী, “২০১৯ সালের জয়ের পরে আশা করব এই প্রতারণার পদ্ধতিকে আপনার দূর করবেন। আমাদের সকলের বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জন করতে হবে।”

আরও পড়ুন- বারাকপুরে তৃণমূল নেত্রীর নির্মীয়মাণ বাড়ি থেকে বোমা উদ্ধারে চাঞ্চল্য

দেশের অবিজেপি রাজনৈতিক দলগুলি ক্রমাগত সংখ্যালঘুদের প্রতি প্রতারণা করে চলেছে বলে অভিযোগ করে মোদী বলেন যে অবিলম্বে বিরোধীদের এই প্রতারণা বন্ধ করতে হবে। সবার সঙ্গে থেকে বিকাশের স্লোগান ছেড়ে এখন সবার বিশ্বাস অর্জনে মন দেওয়ার কথা বলেছেন মোদী। প্রধানমন্ত্রীর কথায়, “আমরা সবার সঙ্গে থেকে সবার বিকাশের(সবকা সাথ, সবকা বিকাশ) জন্য কাজ করেছি। এবার আমাদের নতুন মন্ত্র হচ্ছে সবার বিশ্বাস।”