লখনউ: ভোটের মাঝেই ফের রাজনীতির ময়দানে সেনাবাহিনীকে নিয়ে এলেন মোদী। তাও আবার সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ষষ্ঠ দফার ভোট গ্রহণের দিনে।

রবিবার সমগ্র দেশ জুড়ে চলচ্ছে সপ্তদশ লোকসভা ষষ্ঠ দফার ভোট গ্রহণ। এদনিই উত্তর প্রদেশের কুষিনগরে নির্বাচনী জনসভায় হাজির ছিলেন মোদী। সেই জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়েই ভারতীয় সেনার প্রশংসা করে বিরোধী শিবিরকে আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়ুন- বিজেপি সাংসদের হোটেলের ঘর থেকে উদ্ধার বিপুল টাকা, দায়ের অভিযোগ

রবিবার ভোররাতে সোপিয়ানের হিন্দ সীতাপোরা এলাকায় শুরু হয় এনকাউন্টার৷ নির্দিষ্ট কিছু তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে তল্লাশি অভিযানে নামে নিরাপত্তা বাহিনী৷ এরপরই সন্ত্রাসবাদীদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়ে৷ ওই ঘটনায় দুই জঙ্গি খতম হয়েছে এবং আরও কয়েকজন জঙ্গি এই জখম হয়েছেন।

এই বিষয়টিকে হাতিয়ার করেই মন্তব্য রেখেছেন মোদী। তিনি বলেছেন, “আজ সকালে কিছু জঙ্গিকে আমাদের সেনা মেরে ফেলেছে। এতে কিছু লোকের খুব সমস্যা হবে। ওরা বলবে, আজ ভোটের দিনে মোদী কেন জঙ্গিদের মারল?” একই সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন, “ওরা(জঙ্গিরা) বোম-বন্দুক নিয়ে সামনে দাঁড়িয়ে থাকবে, আর সেনারা গুলি করবে কিনা সেটার জন্য নির্বাচন কমিশনের অনুমতির অপেক্ষা করবে?”

আরও পড়ুন- দেব- ভারতী-মানস- দিলীপরা নিজেরাই নিজেদের ভোট দেবেন না

কাশ্মীরে জংগি দমন অভিযান আসলে সাফাই অভিযান এবং এই কাজ নিয়মিত মোদী করেই যাবেন বলে জানিয়েছেন। ক্ষমতায় এসেই এলাকা পরিষ্কার রাখতে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের ডাক দিয়েছিলেন মোদী। কাশ্মীরে জঙ্গি দমন অভিযানও সেই প্রকল্পের অঙ্গ বলেই মনে করছেন মোদী। তিনি বলেছেন, “আমি ক্ষমতায় আসার পর থেকে কাশ্মীরে প্রতি দুই-তিন দিনের মধ্যেই জঙ্গিদের সাফাই করা হয়। আর সাফাই অভিযান আমার কাজ।”