নয়াদিল্লি: কার্যত লোকসভা ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশের আগেই প্রথম প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে কার্যত অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে কংগ্রেস। অন্যদিকে নির্ঘণ্ট প্রকাশ হওয়ার ঠিক পরেই বাংলার ৪২টি লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী ঘোষণা করে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যে প্রথম দফায় বাংলায় নিজেদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে দিয়েছে বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেসও।

কিন্তু এখনও পর্যন্ত নিজেদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে পারেনি বিজেপি। বাংলায় প্রথম দফার ভোটে আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। সেখানে দাঁড়িয়ে তালিকা প্রকাশ করতে না পারায় অনেকটাই ব্যাকফুটে বিজেপি। আর এখনও পর্যন্ত বিজেপি প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে না পারাটা কর্মীদের মনোবলে আঘাত লাগবে বলেও মনে করছে রাজনৈতিকমহল। সেখানে দাঁড়িয়ে আজ মঙ্গলবার প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে পারে বিজেপি। শোনা যাচ্ছে, প্রথম দফায় মোট ১০০টি কেন্দ্রের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে পারে বিজেপি।

তবে আজ প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করার আগে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় দিল্লিতে নির্বাচনী কমিটির বৈঠক বসবে ৷ সেই বৈঠকেই প্রার্থী তালিকা নিয়ে আলোচনা হবে ৷ সেই বৈঠকে প্রার্থীদের নামে চূড়ান্ত শিলমহর দেবেন মোদী-অমিত শাহরা। এরপর সম্ভবত ১০০ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করতে পারে বিজেপি।

সূত্রের খবর, পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ-সহ ১০ রাজ্যের প্রার্থী ঘোষণা করা হবে। ১২টি রাজ্যের ১০০ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হতে পারে। আর সেই প্রার্থী তালিকাতে অবশ্যই থাকবে চমক। যেমন প্রথম প্রার্থী তালিকাতে একদিকে যেমন থাকতে পারে মোদী, রাজনাথ সহ একাধিক বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের নাম। অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের একাধিক লোকসভা কেন্দ্রে থাকতে পারে চমক। যেমন অর্জুন সিং, অনুপম হাজরা, খগেন মুর্ম সহ একাধিক নাম যেমন থাকতে পারে তেমনই এমন কিছু নাম প্রার্থী তালিকায় থাকতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে যা কিনা যথেষ্ট উদ্বেগের ভাঁজ ফেলতে পারে তৃণমূলের কপালে।

সূত্রে জানা গিয়েছে, এবারও বারানসি কেন্দ্র থেকে লড়তে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অন্যদিকে জাতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক, পটনা সাহিবের সম্ভাব্য প্রার্থী হতে পারেন রবিশংকর প্রসাদ ৷ লখনউয়ের সম্ভাব্য প্রার্থী হতে পারেন রাজনাথ সিং৷