মিলানঃ  গত কয়েকদিন আগে এক তরুণীকে বাক্সের মধ্যে গুটিশুটি অবস্থায় উদ্ধার করে মিলান পুলিশ। বাক্সবন্দি অবস্থায় উদ্ধার হওয়া তরুণীকে দেখে কার্যত স্তম্ভিত হয়ে যান পুলিশের আধিকারিকরা। বুঝতে পারেন না কি করবেন তরুণীকে নিয়ে। এমনকি কে এর পিছনে রয়েছে তা জানতে শুরু হয় তদন্ত। আর সেই ঘটনায় লুকাস পাওয়েল হারবা নামে এক চিত্রগ্রাহককে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযোগ, পর্নোগ্রাফি সাইটে চড়া দামে ওই তরুণীকে বেচে দেওয়ার নাকি ফন্দি করেছিল লুকাস। কিন্তু পুলিশের ভয়ে বাক্স ফেলে রেখে পালায় সে।

যদিও সেই ঘটনা অতীত! অবশেষে প্রকাশ্যে এলেন উদ্ধার হওয়া তরুণী মডেল। তিনি জানিয়েছেন, ভুয়ো ফটোশুটের কথা বলে তাঁকে ইতালির মিলানে নিয়ে যায় লুকাস। মডেল হওয়ার জন্য জুলাইয়ের ১০ তারিখ ব্রিটেন থেকে ইতালির মিলানে এসে পৌঁছন তিনি। পর দিনই তাঁর ফটোশুটের কথা ছিল। ফটোশুটের জন্য লুকাস তাঁকে মিলানে নিজের অ্যাপার্টমেন্ট-এ আসতে বলেছিল। কিন্তু লুকাসের ঘরের ভিতরে ঢুকতেই বিষয়টি পাল্টে যায়। তরুণীর অভিযোগ, ঘরে ঢুকতেই বদলে যায় সব কিছু। বাধ্য করা হয় নীল ছবির জন্যে নগ্ন শুট করতে। কিন্তু বিষয়টি করতে রাজি হন না। এরপরেই তাকে নেশার কিছু খাওয়ানো হয়। এরপর আর তেমন হুঁশ ছিল না। তবে সে জানিয়েছে, তার এইটুকু মনে আছে যে হাত-পা বেঁধে একটি বড় স্যুটকেসের ভিতরে তাঁকে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। সেখান থেকে স্যুটকেসটি গাড়িতে চাপিয়ে তুরিনের প্রত্যন্ত এলাকার একটি বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়।

এরপর তার বাড়ির লোকজন খোঁজ না পাওয়াতে মিলান পুলিশের দ্বারস্থ হয় তাঁর পরিবার। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তদন্তে লুকাসের ফোন ট্র্যাক করে পুলিশ। এরপরেই এই রহস্যের পর্দাফাঁস হয়।