নয়াদিল্লি: পৃথিবী জুড়ে চলছে কালান্তক করোনার কালবেলা। অব্যাহত মৃত্যু মিছিল। সংক্রমণ রুখতে জারি রয়েছে লকডাউন, তবুও মিলছে না রেহাই। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত এক নতুন তথ্য উপস্থাপন করলেন একদল চিকিৎসক।

রায়পুর এইমস-এর বিশিষ্ট চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন, দিন যতই যাচ্ছে ততই চরিএ বদল করে ভারতে ভয়ংকর রুপ ধারণ করছে করোনা। এই অবস্থায় আমাদের মুঠো ফোন থেকেও করোনা সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে। প্রথমে শুনলে আপনার মনে হতেই পারে এটা আবার কখনও সম্ভব নাকি? তবে এমনটাও সম্ভব। আর তা এইমসের পক্ষ থেকে প্রকাশিত একটি জার্নালে তুলে ধরেছেন বিশেষজ্ঞরা।

ওই জার্নালে প্রকাশিত তথ্যে জানা গিয়েছে, মুঠো ফোন বা মোবাইল ফোন ব্যবহারের মাধ্যমে সবথেকে বেশি করোনা সংক্রামিত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে। কারন, শুধু ঘরেই নয়, হাসপাতালেও চিকিৎসক স্বাস্থ্যকর্মীরা ব্যবহার করচ্ছেন মোবাইল ফোন। ফোনের মাধ্যমে সবসময় আদান প্রদান করা হচ্ছে মেডিকেল বুলেটিন। এছাড়াও বাড়ি বা প্রিয়জনদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে কোভিড হাসপাতাল গুলিতে কর্মরত চিকিৎসক, নার্সদের একমাত্র ভরসা মোবাইল।

তবে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, আমাদের অজান্তে এই মোবাইল ফোনই ডেকে আনছে সমূহ বিপদ। কারন, ফোনের মধ্যে লুকিয়ে রয়েছে অসংখ্য জীবাণু। যা আমরা খালি চোখে দেখতে পাই না। যারফলে অদৃশ্য এই জীবাণুর দ্বারাও করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বা মারণ ব্যাধির জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। যদিও এই বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(হু) আগেই সর্তক করেছিলো। ফলে হিসেবে কোভিড হাসপাতাল গুলিতে ডাক্তার, নার্স এবং স্বাস্থ্য ককর্মীদের মোবাইল ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক বার্তা দিয়েছিলো।

তবে ‘হু’য়ের আগাম সর্তকবার্তা যে খুব একটা ফলপ্রসূ হয়নি তা বলাই বাহুল্য। আর এই অবস্থায় করোনা আক্রান্ত রোগী এবং হাসপাতাল গুলিতে চিকিৎসা করাতে আসা রোগী, ডাক্তার এবং নার্সদের মোবাইল ফোনের ব্যবহার সংক্রমণ বাড়িয়ে দেওয়ার আশঙ্কাকে আরও দ্বিগুন করে তুলছে। ফলে, যন্ত্র সভ্যতার যুগে মোবাইল ছাড়া এক পা-ও চলা অসম্ভব। তবে বর্তমান করোনা মহামারী তথা দেশজোড়া এই,জটিল পরিস্থিতি রুখতে মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে আমাদের হতে হবে আরও সর্তক।

যতটা সম্ভব হাসপাতাল গুলিতে ডাক্তার, নার্সদের মোবাইল ফোনের ব্যবহার কমাতে হবে। সম্ভব হলে মোবাইল না ব্যবহার করায় এখন সবথেকে ভালো। এমনটাই মত এইমস বিশেষজ্ঞ মহলের। তবে মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে অবশ্যই মেনে চলতে হবে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সবরকম সতর্কতাবিধি। প্রতিবার ফোন ব্যবহারের পর হাত হ্যান্ড ওয়াশ বা স্যানিটাইসর দিয়ে পরিস্কার করা উচিত। এছাড়াও ফোনকেও জীবাণু মুক্ত করা প্রয়োজন।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।