ঢাকা: নির্দেশ মতই ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে মোবাইল নেটওয়ার্ক বন্ধ করে দিল বাংলাদেশ সরকার। সোমবার থেকেই সীমান্ত এলাকায় মোবাইল ইন্টারনেট ও মোবাইল পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে ওই সীমান্ত এলাকায় ২০০০ মোবাইল ফোন টাওয়ার রয়েছে। এই সিদ্ধান্তের পর ১ কোটি মানুষ সমস্যায় পড়বেন।

রবিবার বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ বা বিটিআরসি থেকে এই ব্যাপারে চারটি মোবাইল ফোন অপারেটরকে একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে সে দেশের সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত সীমান্তে মোবাইল নেটওয়ার্ক বন্ধ রাখতে বলা হয় ওই চিঠিতে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার যদিও বিবিসি বাংলাকে বলেন যে তাঁর মন্ত্রক থেকে এই সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়নি। তবে তাঁর দাবি, সিদ্ধান্তটি সরকারের। সরকার বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছে। বিটিআরসি কি নির্দেশ পেয়েছে, কি বাস্তবায়ন করছে, সেটি বিটিআরসি বলতে পারে”।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহুরুল হক অবশ্য এই চিঠি দেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে নিয়েছে।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান জানিয়েছেন, এটা একটা সিদ্ধান্ত পাওয়া গিয়েছে উচ্চ পর্যায় থেকে। কিছুটা অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে ইন্ডিয়াতে। সেটি বোধ হয় নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে সরকার। তবে আমরা কিছু করিনি এখনও।

প্রক্রিয়াধীন আছে – কি করতে পারি চিন্তা করছি”। এক প্রশ্নের জবাবে বিটিআরসি চেয়ারম্যান আরও বলেন, ভারতের নাগরিক পঞ্জী নিয়ে যেন কোনও অসন্তোষ সৃষ্টি না হয়, কেউ যেন প্রোপাগান্ডা বা গুজব রটনা না করতে পারে, সেজন্য সরকার তৎপর আছে।