হায়দরাবাদ: ট্রাকে চাপিয়ে পাচার করা হচ্ছিল ৫৭টি গরু। খবর পেয়ে তা রুখলেন বিজেপি বিধায়ক টি রাজা সিং।

ঘটনাটি তেলেঙ্গানা রাজ্যের সামিরপেট থানা এলাকার। সোমবার সকালে সেখানে ট্রাক ভরতি গরু পাচার রুখে দুই ব্যক্তিকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন গোসামহল কেন্দ্রের বিধায়ক।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, তেলেঙ্গানার রাজধানী শহর হায়দরাবাদ থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে মেদছাল জেলায় অবস্থিত সামিরপেট থানা। সেখানে একটি বড় কনটেনার ট্রাকে করে গরু পাচার করা হচ্ছিল। বিধায়ক রাজা সিং-এর তৎপরতায় তা রুখে দেওয়া গিয়েছে। উদ্ধার হওয়া মোত ৫৭টি গরুর অধ্যে অনেক বাছুর ছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। ট্রাকের চালককেও হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জেরায় চালক জানিয়েছে যে অন্ধ্রপ্রদেশের নরসান্নাপেট এলাকা থেকে গাড়িটি নিয়ে আসা হচ্ছিল। গন্তব্য ছিল আল কবির এলাকা।

গন্তব্যস্থলটি সাঙ্গারেড্ডি জেলার রুদ্রারাম গ্রামে অবস্থিত। যেখানে বিশাল বিফ ফার্ম রয়েছে। যেখান থেকে প্রচুর গোমাংস রফতানি করা হয়। সামিরপেট থানার পুলিশ ইন্সপেক্টর বি নবীন রেড্ডি বলেছেন, “গোহত্যা এবং গবাদি পশু সংরক্ষণ আইনে একটা মামলা রুজু করা হয়েছে। তদন্ত চলছে।”

বিধায়ক টি রাজা সিং তেলেঙ্গানার একমাত্র বিজেপি বিধায়ক। গোরক্ষা, উগ্র হিন্দুত্ববাদ এবং রাম মন্দিরের দাবিতে আন্দোলন করায় যথেষ্ট সুনাম রয়েছে এই ব্যক্তির। মুসলিম বিধায়ক তেলেঙ্গনার স্পিকার হওয়ায় তিনি তাঁর থেকে শপথ গ্রহণ করেননি।

এই গরু উদ্ধারের পর বিধায়ক রাজা সিং বলেছেন, “খুব খারাপভাবে গরুগুলোকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। ট্রাকের মধ্যে গাদাগাদি করে রাখা হয়েছিল ৫৭টা গরু। যার মধ্যে অনেক বাছুরও ছিল। ট্রাকের মাথার দিকটা ফাঁকা করে বাকি সব দিক বন্ধ ছিল।” একই সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন, “এই ভাবেই দেশের সর্বত্র গরু পাচার হচ্ছে। আমরা ধৃতদের পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। আপনারা এমন কিছু দেখলে পুলিশের সাহায্য নিন। আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না।”