নিউইয়র্ক:  কয়েক দশক ধরে কেবল কাল্পনিক কাহিনীর কমিক বইগুলোতে আর সিনেমার পর্দায় যা সম্ভব ছিল তা আজ বাস্তব হতে চলেছে। এক্স-রে ভিশন প্রযুক্তিকে বাস্তবে রূপ দিতে যাচ্ছে 'ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজি' (এমআইটি)–এর একদল গবেষক।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, এমআইটি-এর প্রফেসর ডিনা কাটাবির নেতৃত্বে একদল গবেষক একটি সফটওয়্যার তৈরি করেছে যা রেডিও সংকেতের মধ্যেমে দেওয়ালের অন্য প্রান্তে মানুষের উপস্থিতি দেখতে পেতে সাহায্য করবে। এমআইটি ওয়্যারলেস সেন্টারের পরিচালক কাটাবি জানিয়েছেন, একটি বেতার সংকেত ব্যবহার করে ঘরের বিপরীত পাশে কী হচ্ছে তা কীভাবে জানা যায় তা নিয়েই ২০১২ সাল থেকে পরীক্ষা নিরীক্ষা শুরু করে। 

গবেষকরা জানিয়েছে,  শিশু এবং বয়স্কদের উপর নজর রাখার ক্ষেত্রে এ প্রযুক্তিটি বেশ উপকারী হবে, এছাড়াও সামরিক বাহিনীর জন্য গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার হিসেবে কাজ করবে এই ডিভাইসটি। গবেষক জ্যাক ক্যাবালেক জানিয়েছেন, ডিভাইসটির স্ক্রিনে মানুষের চলাফেরা শনাক্ত করে লাল বিন্দুর মাধ্যমে সিগন্যাল দেবে। সেই সঙ্গে কোনও ব্যাক্তির শ্বাসপ্রশ্বাস, হৃদস্পন্দন আলাদাভাবে পরিমাপও করতে পারবে। তিনি আরও জানিয়েছেন, কেউ যদি কোনো প্রকার বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে পড়ে, তবে সেক্ষেত্রে ডিভাইসটি ইমেইল অথবা টেক্সট মেসেজের মাধ্যমে সতর্কবার্তা পাঠাবে। স্মার্টফোন অ্যাপ দ্বারাও ডিভাইসটিকে ব্যাভার করা যাবে।
২০১৭-র মধ্যে এই ডিভাইসটিকে বাজারে আনার চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে বলে জানাগিয়েছে।