স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সামনেই লোকসভা ভোট৷ ৪২-এ ২২৷ টার্গেট বেঁধে দিয়েছেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি৷ নির্দেশ, লক্ষ্যপূরণে এক যোগে কাজ করতে হবে৷ কিন্তু কে শোনে কার কথা৷ আপাতত গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে জীর্ণ রাজ্যের গেরুয়া শিবির৷ যা ক্রম সঞ্চারিত হয়েছে জেলা থেকে মণ্ডল স্তরের সংগঠনেও৷ দলের দক্ষিণ ২৪ পরগনার পশ্চিম প্রান্ত সভাপতি অভিজিৎ দাসের বিরুদ্ধে দল বিরোধী কাজের অভিযোগ তুললেন সহ সভাপতিরা৷ যদিও বিষয়টিকে আমল দিতে নারাজ মুরলীধর সেন লেনের নেতারা

আরও পড়ুন: সীতারাম কেশরীকে করা অপমান ভুলে গেলেন, সোনিয়াকে তোপ মোদীর

দলে থেকেই প্রান্ত সভাপতি অনবরত করে চলেছেন দল বিরোধী কাজ৷ পদে থেকে স্বৈরাচার চালাচ্ছেন সভাপতি অভিজিৎ দাস ওরফে ববি৷ অভিযোগ সংগঠনের অন্যন্যদের৷ শুধু তাই নয়, ববির সঙ্গে নাকি যোগাযোগ রয়েছে রাজনীতির ময়দানে ঘোর প্রতিপক্ষ তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ এমনটাই দাবি বিজেপি সংগঠনে ববির বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর নেতাদের৷

দক্ষিণ ২৪ পরগনার পশ্চিম প্রান্ত সহ সভাপতি অরুণ জানার অভিযোগ, ‘‘হিটলারের মতো ব্যবহার করছেন সভাপতি৷ দলে থেকে অন্য দলের নেতাদের তথ্য দেওয়া হচ্ছে৷ বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ঘনিষ্ঠ বলে তাকে কিছু বলা যায় না৷’’ প্রযুক্তিকে কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে এগিয়ে গেরুয়া শিবির৷ অভিযোগ, ‘‘হোয়াটসঅ্যাপে সংগঠনে লোক আনে ও বার করে দেন ববি৷’’

আরও পড়ুন: “রামমন্দির না হলে হতে পারে বিদ্রোহ”

এখানেই শেষ নয়৷ প্রান্ত সংগঠনের আরও এর সহ সভাপতির অভিযোগ, ‘‘কিছু বললেই দল থেকে বার করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়৷ যা অত্যন্ত অপমানজনক৷’’ এমকি রাজ্য বিজেপি নেতাদের কাছে সম্পূর্ণ বিষয়টি জানানো হলেও সুরাহা মেলেনি৷ এবার বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেননকে অভিযোগ জানানো হবে বলে হুমকি দিয়েছেন প্রান্ত সংগঠনের ববি বিরোধী নেতৃত্ব৷

তবে জেলার প্রান্ত সংগঠনের একাংশের এই অভিযোগকে কার্যত উড়িয়ে দিয়েছেন রাজয বিজেপির সাদারণ সম্পাদর সায়ন্তন বসু৷ অভিযোগকারীরা দলের সোর কিনা তা নিয়েই সন্দেহ প্রকাশ করেন তিনি৷ বলেন, ‘‘যথাস্থানে অভিযোগ না জানিয়ে পার্টির শৃঙ্খলা ভাঙছেন ওরা৷’’

আরও পড়ুন: মাটি খুঁড়তেই ঝনঝন শব্দ! তারপর…

শীত দোর গোড়ায়৷ বাংলা জয়ের স্বপ্নে বিভোর বিজেপির নেতা থেকে কর্মী সবাই৷ তার মাঝেই অভিযোগ, পালটা অভিযোগে রেশ৷ স্বপ্নের শিখা জ্বলার আগেই যেন নিভে যাওয়ার অশনি সংকেত৷ বলছেন সংগঠনেরই অনেকেই৷