জয়পুর: পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে মিজোরাম কংগ্রেসের হাতছাড়া হলেও মধ্যপ্রদেশ-রাজস্থান-ছত্তিশগড়ে এগিয়ে কংগ্রেস৷

তেলেঙ্গানায় ৮৬-তে এগিয়ে রয়েছে তেলেঙ্গানা৷ তবে মধ্যপ্রদেশে প্রতি মুহূর্তে ছবিটা বদলে যাচ্ছে৷ বিকেল ৪টে পর্যন্ত ১১৫-তে কংগ্রেস এবং ১০৫-এ রয়েছে বিজেপি৷ মধ্যপ্রদেশে ২৩০ আসনে ১১৬-র টার্গেটে পৌঁছতে চলছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই৷

এদিকে রাজস্থানে ১৯৯ আসনে ১০৪-এ এগিয়ে ইতিমধ্যেই সেলিব্রেশনের মুডে রয়েছে কংগ্রেস শিবির৷ বিজেপি রয়েছে ৬৭-তে৷

রাজস্থানে বিজেপির ক্ষমতায় ফিরে আসা নিয়ে প্রথম থেকে ধোঁয়াশা কাজ করেছিল৷ আর মঙ্গলবার যত দিন গড়িয়েছে ততোই ছবিটা যেন আরও বেশি করে স্পষ্ট হয়ে উঠেছে৷

জয়পুরে বিজেপির কার্য্যালয়ে যেখানে শুনশান, পড়ে রয়েছে খালি চেয়ার, সেখানেই কংগ্রেস হেড কোয়ার্টারে ছবিটা একেবারেই বিপরীত৷ চলছে সেলিব্রেশন৷

তবে ভোটগণনা শুরুর অনেক আগে থেকে বিভিন্ন সংস্থার বুথ ফেরৎ সমীক্ষা দেখে কংগ্রেসে শিবিরে সেলিব্রেশনের পালা শুরু হয়ে গিয়েছিল৷ মঙ্গলবার সকাল থেকেই সাজো সাজো রব পড়ে যায় কংগ্রেসের জাতীয় সদর দফতরে। নয়াদিল্লির ২৪ নম্বর আকবর রোডে ভিড় জমতে শুরু করে দলের কর্মী-সমর্থকদের।

অনেক কর্মী আবির উড়িয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। ‘সেমিফাইনাল আমরা জিতছিই’, এটা একপ্রকার নিশ্চিত ধরে নিয়ে অনেকেই প্রধানমন্ত্রীর পদে রাহুল গান্ধীকে দেখার আশায় বুক বাঁধেন৷

অন্যদিকে গণনা শুরু আগে মন্দিরে পৌঁছে যান রাজস্থানের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেত্রী বসুন্ধরা রাজে। এদিন সকালেই জয়পুরের ত্রিপুরা সুন্দরি মন্দিরে গিয়েছিলেন তিনি।