স্টাফ রিপোর্টার, বারাসত: হ্যাম রেডিও ও উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগর হাসপাতালের অভিনব উদ্যোগ। ৩০ বছর পর পরিবার ফিরে পেলেন বৃদ্ধ জয় গোবিন্দ। ৩০ বছর আগে বিহারের রতাস জেলার বাড়ি ছাড়েন জয়। নানা জায়গায় ঘুরতে ঘুরতে হঠাৎই চলে এসেছিলেন উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরে।

৩০ বছর আগের যুবক জয় গোবিন্দ, আজ ৬০ বছরের বৃদ্ধ। তবে, বহুদিন অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের মধ্যে ঘুরে বেড়ানোয় আরও বেশি বয়স্ক মনে হচ্ছে তাঁকে। চোখের জ্যোতি এখনও কমে যায়নি। এতদিন পর নিজের ভাইদের দেখে চোখের জল আর ধরে রাখতে পারেননি ওই বৃদ্ধ।

অশোক নগর স্টেট জেনারেল হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, মাস দেড়েক আগে অশোকনগর স্টেশনের উপর থেকে ওই বৃদ্ধকে স্থানীয় ক্লাবের সদস্যরা ও কিছু রেলযাত্রী জখম অবস্থায় উদ্ধার করে নিয়ে আসে হাসপাতালে। তখন তার নাম পরিচয় না পাওয়া গেলেও মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে বৃদ্ধের চিকিৎসা শুরু করেন চিকিৎসকরা। তেমনি সেবা-শুশ্রূষা করে হাসপাতালের সেবিকারাও।

শারীরিকভাবে কিছুটা সুস্থ হলেও সেভাবে নাম ঠিকানা কিছুই বলতে পারছিলেন না বছর ষাটের ওই বৃদ্ধ। তাই গত রবিবার হাসপাতালের সুপার সোমনাথ মন্ডল ওই বৃদ্ধকে তার বাড়ি ফেরানোর জন্য উদ্যোগী হয়ে যোগাযোগ করেন হ্যাম রেডিওর সদস্যদের সঙ্গে। এরপর হ্যাম রেডিওর কর্মীরা বৃদ্ধের ছবি ও গলার কণ্ঠস্বর এবং অর্ধেক বলা তার সম্ভাব্য নাম সোশ্যাল মিডিয়া মারফত ছড়িয়ে দেয় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা হ্যাম রেডিওর শাখায়। এরপর সোমবার খোঁজ পাওয়া যায় ওই বৃদ্ধের পরিবারের।

জানা গিয়েছে, ৩০ বছরেরও বেশি সময় আগে বাড়ি থেকে হঠাৎ নিখোঁজ হয়ে যাওয়া এই বৃদ্ধর নাম জয়গোবিন্দ বিন্দ। তাঁর বাড়ি বিহারের রতাস জেলার শিবসাগর থানা এলাকায়। মঙ্গলবার অশোকনগর হাসপাতালে জয়গোবিন্দ এর দুই ভাই বাবন বিন্দ ও মুখরাম বিন্দ ও তাঁদের এক জামাতা দারোগা বিন্দ অশোকনগরে বৃদ্ধকে নিতে আসে। হাসপাতাল থেকে অশোকনগর থানাতেও খবর জানানো হয়।

পরে পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতিতে বৃদ্ধকে নিয়ে যায় তার পরিবার। যেভাবে একজন অচেনা মানুষকে পরিষেবা দিয়ে সুস্থ করে তুলেছে হাসপাতালের ডাক্তার ও কর্মীরা তাতে খুশি পরিবারের লোকেরা। পাশাপাশি তাঁরা ধন্যবাদ জানিয়েছে পুলিশ প্রশাসন ও হ্যাম রেডিও কর্তৃপক্ষকে। বৃদ্ধকে তাঁর পরিবারের সদস্যদের হাতে ফিরিয়ে দিতে পেরে ভীষন খুশি এ রাজ্যের হ্যাম রেডিও পরিবারের সদস্যরা সকলেই। পুনর্মিলনের সময় চোখে জল হ্যাম রেডিও পরিবারের সদস্যদেরও।