প্রতীকী ছবি

শ্রীনগর: ফের এক যুবকের নিখোঁজ হয়ে যাওয়া নিয়ে পরিস্থিতি সরগরম হয়ে ওঠে কাশ্মীরের কূপওয়াড়া এলাকায়৷ কয়েকদিন আগেই এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে এসেছে৷ জানা গেল, সেই নিখোঁজ যুবকই নাম লিখিয়েছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন হিজবুল মুজাহিদিনে৷ AK-47 হাতে নিয়ে তার একটি ছবিই ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়৷

সূত্রের খবর৷ কয়েকদিন আগেই কূপওয়াড়া পুলিশ স্টেসনে ইমতিয়াজ আহমেদ মীর নামে ওই যুবকের নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার অভিযোগ জমা পড়ে৷ এর কয়েকদিনের মধ্যেই ফেসবুক এবং ট্যুইটারে ইমতিয়াজের আগ্নেয়াস্ত্র হাতে নিয়ে একটি চবি ভাইরাল হয়৷ এই ছবি দেখে মনে করা হচ্ছে, গত ১২ জুন ইমতিয়াজ ওই সন্ত্রাসবাদী সংগঠনে নাম লিখিয়েছে৷

প্রসঙ্গত, এই প্রথম নয়৷ জঙ্গিদলে নাম লেখানোর এমন উদাহরণ এর আগেও দেখা গিয়েছে কাশ্মীরে৷ এবং তরুণ সম্প্রদায় যাতে বিপথে এভাবে চালিত না হয়, তার জন্য তাদের অভিভাবকদের সতর্ক থাকার আবেদনও করা হয়েছিল সেনার পক্ষ থেকে৷ তারপরেও এই ধরণের ঘটনায় ফের একবার চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে৷

পড়ুন: অনন্তনাগে সেনা-জঙ্গির গুলির লড়াইয়ে শহিদ আর্মি মেজর, খতম জঙ্গি

এদিকে, সোমবারই সেনা-জঙ্গির গুলির লড়াইয়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয় জম্মু-কাশ্মীরের অনন্তনাগের৷ আর্মি মেজর এই এনকাউন্টার পর্বে শহিদ হন এব এক জঙ্গিকে খতম করা হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে৷ পাশাপাশি, ১৯ রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের ২ সেনা এবং এক সেনা আধিকারিক আহত হন এবং জম্মু-কাশ্মীরের ডিজিপি দিলবাগ সিং জানান, এখনও এনকাউন্টার চলছে৷ এই পর্ব শেষ হলে এ সম্পর্কে আরও তথ্য দেওয়া সম্ভবপর হবে বলে তিনি জানান৷

এর আগে গত ১২ জুন অনন্তনাগে সিআরপিএফ-জঙ্গির গুলির লড়াইয়ে ৫ জওয়ান শহিদ হন৷ শহিদ জওয়ানরা হলেন, এএসআই রমেশ কুমার(ঝঝ্ঝর, হরিয়ানা). এএসআই নিরোদ শর্মা (নলবাড়ি, অসম), সিটি সত্যেন্দ্র কুমার (মুজফ্ফরনগর, উত্তরপ্রদেশ), সিটি মহেশ কুমার কুশওয়াহা(গাজিপুর, উত্তপ্রদেশ) এবং সিটি সন্দীপ যাদব (দেওয়াস, মধ্যপ্রদেশ)৷