নয়াদিল্লিঃ  পাকিস্তান সীমান্তবর্তী দু’টি গ্রামে একেবারে গোপনে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। রাজস্থানের আলওয়ার এবং পালি গ্রামে অত্যাধুনিক এবং গোপন এই ব্যবস্থা মোতায়েন করা হবে। গত কয়েক বছর আগে পাকিস্তানকে শিক্ষা দিতে এমনই সিদ্ধান্ত নেয় ভারতীয় সেনা।

পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদ থেকে ৮০০ কিলোমিটারেও কম দূরত্বে অবস্থিত এই দুটি ভারতীয় গ্রাম। একেবারে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা এই দুই গ্রামে মোতায়েন করা হবে। বছর খানেক আগে এমনই একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ভারতীয় সেনার তরফ।

পৃথিবীর আবহমন্ডলের বাইরে বা ভেতর দিয়ে আসে যে কোনও শত্রুর ধেয়ে আসা ক্ষেপণাস্ত্র এই ব্যবস্থা দিয়ে ঘায়েল করা যাবে।

এই সিস্টেমের মাধ্যমে ১৫ থেকে ২০ কিলোমিটার উচ্চতা দিয়ে ধেয়ে আসা শত্রু- ক্ষেপণাস্ত্র এই দিয়ে ধ্বংস করা সম্ভব হবে। এ ছাড়া, দুই হাজার কিলোমিটার পাল্লার মধ্যে যে কোনও ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস করা যাবে চোখের পলকে। ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাটির তৈরি সংস্করণের রাডার ইজরায়েলের সঙ্গে যৌথ ভাবে বানানো হয়েছে।

ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার আর কয়েকটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ করার পর তা ভারতীয় সেনাবাহিনীর হাতে তা তুলে দেওয়া হবে। খুব শীঘ্রই এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার সর্বশেষ পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে।

এতে আবহমন্ডলের বাহির এবং ভেতর দিয়ে ধেয়ে আসা কল্পিত শত্রুর উভয় ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস করা হয়েছিল। আপাতত পাকিস্তান সীমান্তে এই ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নয়াদিল্লি। আগামিদিনে নয়াদিল্লি এবং মুম্বইতেও ধীরে ধীরে গোপনে এই মিসাইল সিস্টেম বসানো হবে বলে জানা গিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।