স্টাফ রিপোর্টার,বারাকপুর: ফের বোমাবাজির ঘটনায় নতুন করে উত্তপ্ত হয়ে উঠল ভাটপাড়া পুরসভা এলাকা।

এবার বোমা মারা হল তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয় লক্ষ্য করে। তবে বোমাটি এসে পড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়ের চিলে কোঠার দেওয়ালে। সোমবার রাতে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে, উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়া পুরসভার ১০ ওয়ার্ডে তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয়ে।

জানা গিয়েছে, সোমবার রাত ১১ টা নাগাদ একটি বাইকে করে ৩ জন দুষ্কৃতী এসে ভাটপাড়া পুরসভার সুন্দিয়া পাড়া এলাকার তৃণমূল কার্যালয় লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়ে। যেই সময় এই বোমা মারার ঘটনা ঘটে তখন বেশ কয়েকজন দলীয় কর্মী ওই কার্যালয় বসে তাদের দলীয় কাজকর্ম নিয়ে আলোচনা করছিলেন।

হঠাৎই প্রচন্ড জোড়ে বিকট একটা শব্দ শুনতে পান তাঁরা। সঙ্গে সঙ্গে দলীয় কার্যালয় থেকে বেরিয়ে এসে তৃণমূল কর্মীরা দেখতে পান মুখ ঢাকা অবস্থায় তিন দুষ্কৃতী দ্রুত বাইক চালিয়ে চলে যাচ্ছে। বোমা ফাটার শব্দে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন অন্যান্য প্রতিবেশীরাও। খবর দেওয়া হয় জগদ্দল থানায়। পুলিশ এসে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

ঘটনা সম্পর্কে বলতে গিয়ে তৃণমূল নেতা জিতেন্দ্র সাউ বলেন “অর্জুনের গুন্ডা বাহিনী এই ঘটনা ঘটিয়েছে। ওদের কোন কাজ নেই, জনসেবা করে না, মাঝে মাঝেই রাতের বেলায় অর্জুন সিংয়ের আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বাইক নিয়ে এসে তৃণমূলের পার্টি অফিস গুলোতে বোমা মেরে পালায়। এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করতেই ওরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে আর এখন ওই গুন্ডাদের ভয় পায় না।”

বিজেপির বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করা হলেও বিজেপির পক্ষ থেকে গোটা ঘটনার অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। সাংসদ অর্জুন সিং এর দাবি, “তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্ধের ফলে এই ঘটনা ঘটেছে। কাটমানি খাওয়া নিয়ে ওদের দলের অন্দরে দ্বন্দ শুরু হয়েছে। এই বোমা মারা ঘটনার সঙ্গে বিজেপি কোনও ভাবেই জড়িত নয়।”

যদিও পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। তবে এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি। এদিকে বোমাবাজির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভাটপাড়া এলাকায় নতুন করে রাজনৈতিক চাপান উতোর শুরু হয়েছে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV