মুম্বই: করোনা থেকে বাচার সব চেয়ে বড় উপায় হলো শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করা। চিকিৎসকরা প্রথম থেকেই বলে আসছেন এই মারুন ভাইরাসের সঙ্গে লড়তে গেলে নিজের শরীরকে আরো সুস্থ করে তুলতে হবে যাতে সেই যে কোনো রকমের রোগের সঙ্গে লড়াই করতে পারে।

অভিনেতা শাহিদ কাপুরের স্ত্রী মিরা কাপুর বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে নিজে একটি টোটকা বানিয়েছেন। ঘরে তৈরি এই ইমিউনিটি বুস্টারের রেসিপি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন মীরা।

রোজকার জীবন যাপনের মধ্যে এই ইমিউনিটি বুস্টার এখন আবশ্যক। তাই মীরাও নিয়ম করে রোজ এক কাপ এই ইমিউনিটি বুস্টার ড্রিংক পান করেন। মীরা লিখেছেন, “বাড়িতে তৈরি এই ইমিউনিটি বুস্টার শরীর স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য যথাযথ। ভারতীয় পরিবারে যেভাবে যুগের পর যুগ ধরে স্বাস্থ্যের কিছু নিয়মাবলী থাকে আমি সেই পদ্ধতিকে খুবই বিশ্বাস করি।”

মীরা এক কাপ গরম জলের সঙ্গে হলুদ গুঁড়ো আদা এবং গোলমরিচ মিশিয়ে পান করেন। এই পানীয় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য খুবই উপকারী। শাহিদ ঘরনী লিখছেন, “আমি রোজ এক কাপ গরম জলে হলুদ আদা এবং কালো মরিচ মিশিয়ে পান করি।”

অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে নিজেদের স্বাস্থ্যের বিষয়ে কিন্তু বেশ সচেতন মীরা। মীরার এই ঘরোয়া রেসিপি মুহূর্তে সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়। তার ভক্তরা এই রেসিপি পেজে খুবই উপকৃত সেই বিষয়ে তাঁকে জানান।

অনেকেই লিখেন যে ভারতীয়রা যে সমস্ত মসলা ব্যবহার করেন তাতেই রয়েছে নানা রকম রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা। আর এই মুহূর্তে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর থেকে বড় কিছু আর নেই বলেই বারংবার জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

শাহিদ কাপুরের স্ত্রী হিসেবেই মীরা পরিচিত। কিন্তু তার ব্যক্তিত্বের বেশ মুগ্ধ ফলোয়ার্স। সোশ্যাল মিডিয়ায় যে খুব বেশি সক্রিয় তিনি তা নয়। কিন্তু যখন কোন পোস্ট করেন তখন নজর কারেন্ট ভক্তদের। বিশেষ করে খাবার নিয়ে নানা রকম পোস্ট করেন মীরা রাজপুত। কখনো নাটেলা কেক বানিয়ে আবার কখনো ফল দিয়ে নানা রকম খাবার বানিয়ে পোস্ট করেন তিনি। সাধারণ ফলকেও কী কী ভাবে ব্যবহার করা যায় তার ছবি শেয়ার করেছেন মীরা।

এছাড়া কিছুদিন আগে নিজের বিয়ের অ্যালবাম থেকে একটি পুরনো ছবি শেয়ার করেছিলেন মীরা কাপুর। ছবিতে মিরাকে তার বোনেদের সঙ্গে দেখা যাচ্ছে। ছবির ক্যাপশনে তিনি লিখেছিলেন বোনেদের সঙ্গে তার সম্পর্ক কি রকম।

ছোটবেলা থেকে যাদের সঙ্গে বড় হয়েছেন তারা কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেই পোস্টে তিনি লিখেছিলেন। এছাড়াও পেশায় অভিনেত্রী না হলেও তিনি যে বলিউডের অন্যান্য অভিনেত্রীদের সৌন্দর্যের টেক্কা দিতে পারেন তা তাকে দেখেই বোঝা যায়।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও