কলকাতা : তাঁর সেন্স অফ হিউমর যে কোনও উচ্চতার তা সবাই জানেন। মীর মাঝে মাঝেই তাঁর সোশ্যাল মাধ্যমে এমন সব পোস্ট করেন না চমকে দেওয়ার মতো হয় তো কখনও কখনও এমন পোস্ট করেছেন যা যথেষ্ট বিতর্কের মধ্যে ফেলেছে তাঁকে। আর বুদ্ধিদীপ্ত পোস্ট তো প্রায়ই করে থাকেন তিনি। তাতে তাঁর ফলোয়াররা বুঝলে ভালো, না বুঝলে তা আরও ভালো বলেই মনে করেন তিনি। এদিন তিনি এমনই একটি পোস্ট করলেন তাঁর সোশ্যাল মাধ্যমে, তাও অর্জুনরাম মেঘওয়ালকে নিয়ে।

তিনি কে? এতদিন কেউ জানতেন না। অন্তত বাংলার মানুষতো তাঁকে চিনতেন না। পাঁপড় খেলেই করোনা মুক্তির উপায় বাতলে তিনি বেশ নামডাক করেছেন নিজের। এবার সেই তিনিী হয়েছেন করোনায় আক্রান্ত। তাঁকে নিয়েী মীরের নয়া ফেসবুক পোস্ট। একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন ‘মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় অর্জুনরাম মেঘওয়াল, প্রথমে আপনার শারীরিক এবং সর্বোপরি মানসিক সুস্থতা কামনা করি। ভাবিজী বলেছেন, আজ লাঞ্চে পাঁপড় ভেজে খাওয়াবেন’। ছবিতে আবার উপরে মেঘওয়ালের ছবির উপরে লেখা অর্জুনরাম মেঘওয়াল করোনা পজেটিভ। নীচে মীরের নিজের ছবি দিয়ে লেখা , ‘ভাবিজির পাঁপড় প্রতিরোধ করতে পারল না।’

শনিবার মেঘওয়ালের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তাঁকে এইমসে ভর্তি করা হয়। মন্ত্রী জানিয়েছেন, তিনি স্থিতিশীল রয়েছেন। তবে চিকিৎসকের পরামর্শেই তাঁর এইমসে ভর্তি হওয়া। গত কয়েকদিনে তাঁর সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন, তাঁরা যেন নিজেদের শরীরের দিকে নজর দেন, উপদেশ দিয়েছেন মন্ত্রী। দিন কয়েক ধরে করোনার সংক্রমণ দেখা দেয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুনরাম মেঘওয়ালের। প্রথম রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। পরে আবারও পরীক্ষা করানো গয়। সেই সময় রিপোর্ট পজিটিভি আসে। নিজেই নিজের কথা টুইট করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

সপ্তাহ দুয়েক আগে করোনা ঠেকাতে ভাবিজি পাপড় খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন মেঘওয়াল। এক ভিডিওতে তিনি বলেছিলেন, ভাবিজি পাপড়ে এমনসব উপাদান রয়েছে, যা শরীরে করোনার অ্যান্টিবডি তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তিনি এমনও দাবি করেছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর আত্মনির্ভর ভারত গড়ার সংকল্পে ভাবিজি পাপড় বিশেষ ভূমিকা পালন করবে। আর তারপরেই এই ঘটনা।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা