প্রতীকী ছবি

মুজফফরনগর: ধর্ষণের খবরে আবারও শিরোনামে উত্তরপ্রদেশ। উন্নাও,কানপুরের পর এবার মুজফফ্‌রনগর। ১৪ বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। ধর্ষণের ফলে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে ওই কিশোরী।

গত শনিবার নাবালিকাকে মেডিক্যাল টেস্টের জন্য পাঠানো হয়। ওই কিশোরীকে পরীক্ষা করে চিকিৎসকেরা জানায় সে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এরপরেই মেয়েটির বাবা পুলিশে অভিযোগ জানায়। ইতিমধ্যেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মেয়েটির বাবা পুলিশে অভিযোগ করে জানায়, পাঁচ মাস আগে নাবালিকাকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত।

পুলিশ সূত্রে খবর, পাঁচ মাস আগে মেয়েটি ঘুরতে ঘুরতে একটি ধান খেতে যায়। সেখানেই ওই নাবালিকাকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত। ধর্ষণের পর কাউকে এই বিষয়ে জানালে খুন করে দেওয়ার হুমকিও দেয়। একের পর এক ধর্ষণের ঘটনায় প্রশ্নের মুখে যোগী রাজ্যের শাসন ব্যবস্থা। গোটা উত্তরপ্রদেশ বাদ থাক। শুধু উন্নাওয়েই এ বছরের ১১ মাসে ৮৬টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। যৌন নির্যাতনের ঘটনা ১৮৫টি। উন্নাওয়ে ধর্ষণের শিকার ২৩ বছরের তরুণীকে অভিযুক্তরা পুড়িয়ে মারার দিনেও সেখানে তিন বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ জমা পড়েছে।

আরও পড়ুন – কলকাতায় রমরমিয়ে চলছে মধুচক্র, পুলিশি অভিযানে গ্রেফতার ৬৫

গত কয়েক বছরে একের পর এক এমন ঘটনা ঘটেই চলেছে এই এলাকায়। যার দৌলতে যোগী আদিত্যনাথের শাসনে রাজ্যের ধর্ষণ রাজধানী হয়ে উঠেছে এই জনপদ! মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে যোগী তা হলে কী করছেন? কেন তিনি এর নৈতিক দায়িত্ব নেবেন না? এই প্রশ্ন তুলেই আজ উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি তুলল বিরোধী শিবির।

এই উন্নাওয়েই দু’বছর আগে বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেঙ্গারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল। সেঙ্গারের নামে ধর্ষিতার পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে সাক্ষী লোপাটের মামলাও ঝুলছে। এ বার সেই উন্নাওয়েই ধর্ষণের শিকার ২৩ বছরের এক তরুণীকে পুড়িয়ে মারার ঘটনাতেও বিজেপি-ঘনিষ্ঠদের জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে।