ইসলামাবাদ: ক্রমে পাকিস্তানে বেড়ে চলেছে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ। মঙ্গলবার ক৪অনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন সিন্ধু প্রদেশের দক্ষিণাংশের এক নেতা। ইতিমধ্যে পাকিস্তানে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখনো পর্যন্ত মারা গিয়েছেন ১৬০০ জনের বেশি মানুষ। সিন্ধু প্রদেশের মন্ত্রী গুলাম মুরতাজা বালুচের শরীরে করোনা সংক্রমণের হদিশ পাওয়া যায় গত ১৪ মে।

তিনি নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতে এই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জানিয়েছিলেন এবং সকলে যাতে তার জন্য প্রার্থনা করে তার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। তারপরে ২৩ মে তাকে করাচির একটি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু তারপর থেকেই তার শরীর আরও খারাপ হতে থাকে। সেখানকার মুখ্যমন্ত্রী মুরাদ আলি শাহ জানিয়েছেন বালুচের মৃত্যু অপূরণীয় ক্ষতি। তার অভাব পুরন করা যাবে না। এর আগেও আর এক ন্যাশানাল অ্যাসে্মব্লী সদস্য মুনির খান অরাকজাই মারা যান। তিনি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরদিন মারা গিয়েছিলেন।

তার পরিবারের এক সদস্য জানিয়েছিলেন গত এপ্রিলে অরাকজাইয়ের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছিল। কিন্তু তারপরেও সব নিয়ম মেনে তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উথেছিলেন। সকালের প্রার্থনার সময়ে না ওঠাতে তাকে পরিবারের সকলে তাকে দেকেছিলেন। কিন্তু ঘুম থেকে না ওঠাতে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। অর্থাৎ ধীরে ধীরে পাকিস্তানেও জটিল হচ্ছে এই করোনা।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প