ফাইল ছবি। ঘটনার সঙ্গে কোনও যোগ নেই।

হাওড়া: রাজ্য সরকারের ব্যবস্থাপনায় হাওড়াতেও বিভিন্ন বিধানসভা এলাকায় দিন আনা দিন খাওয়া মানুষের জন্য মন্ত্রী অরূপ রায়ের উদ্যোগে পাঠানো হল খাদ্যসামগ্রী।

করোনা পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশ মেনে গরিব এবং দিনমজুররা যাতে কেউ অভুক্ত না থাকেন সেকথা মাথায় রেখে হাওড়া জেলা সদর তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিসের সামনে থেকে ১২ লরি চাল, ডাল, আলু হাওড়ার আটটি বিধানসভা কেন্দ্রে এদিন পাঠানো হয়। যতদিন লকডাউন চলবে মানুষ যাতে অভুক্ত না থাকে এই কাজ চলবে।

রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায় শুক্রবার সকালে হাওড়া জেলা সদর তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিসের সামনে থেকে এই খাদ্যসামগ্রী বিভিন্ন বিধানসভা কেন্দ্র এলাকায় পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। অরূপ রায় বলেন, ‘মানুষ যাতে সমস্যায় না পড়েন তারজন্য মুখ্যমন্ত্রী দিনরাত এক করে মানুষের পাশে আছেন। তিনি নিজে রাস্তায় নেমে মানুষের যাতে অসুবিধা না হয় তার ব্যবস্থা করছেন।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা তার নির্দেশে দলগতভাবে যারা সাধারণ মানুষ দিন আনে দিন খায় যেমন – ভ্যানচালক, রিক্সাচালক, ঠেলাচালক, টোটোচালক, মজদুর, ফেরিওয়ালা এরা যাতে অভুক্ত না থাকে তারজন্য আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। সকলকে ভালো রাখা আমাদের সরকারের দায়িত্ব এবং দলের দায়িত্ব। আমরা সেই কাজ করছি। আজকে গোটা জেলায় আমাদের বিভিন্ন বিধানসভা কেন্দ্রে ১২ লরি চাল, ডাল, আলু পাঠানো হচ্ছে। লকডাউন পরিস্থিতিতে এই কাজ চলছে। যতদিন এই লকডাউন চলবে আমরা মানুষের স্বার্থে এটা করে যাব। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে এটা করা হচ্ছে। আমরা মানুষের পাশে আছি।’

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।