কলকাতা: শহর কলকাতায় যান-যন্ত্রণার মাত্রাটা আরও বাড়ল। বুধবার থেকে পথে নামবে না মিনিবাস, চূড়ান্ত দুর্ভোগের আশঙ্কা অফিসযাত্রী থেকে শুরু করে অন্য কাজে কলকাতায় আসা আমজনতার। মঙ্গলবার ভাড়া বৃদ্ধি-সহ একাধিক দাবিতে পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠকের কথা ছিল বাসমালিকদের। তবে শেষমেশ সেই বৈঠক বাতিল হয়ে যায়। সেই কারণেই এবার বুধবার থেকে মিনিবাস পথে না নামানোর সিদ্ধান্ত মালিকদের।

আনলক ১ পর্বে খুলে গিয়েছে অফিস-আদালত, কারখানা, দোকান-সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। করোনা আতঙ্কে নিয়েই স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার চেষ্টা চলছে। করোনার জেরে এখনও বন্ধ লোকাল ট্রেন পরিষেবা। শহর ও জেলাগুলিতেও বাসের সংখ্যাও হাতে গোনা।

কলকাতায় এখন এমনিতেই কম বাস চলছে। অন্য যানবাহনের সংখ্যাও কম। এই অবস্থায় নিত্যদিন কর্মক্ষেত্রে যেতে ও বাড়ি ফেরার পথে চূড়ান্ত হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে আমজনতাকে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে বাসের জন্য।

যদিও বা এতদিন মিনাবাস চলছিল, এবার তাও বন্ধের মুখে। কাল থেকে কলকাতার রাস্তায় মিনিবাস নামবে না বলেই জানা গিয়েছে। কারণ, মঙ্গলবার পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠক ছিল মিনিবাস মালিকদের। পরিবহণ দফতরের তরফএ জানানো হয়েছে, শুভেন্দুবাবু অন্য কাজে হঠাৎ করে ব্যস্ত হয়ে যাওয়ায় আজ বৈঠক হবে না।

আচমকা এই খবরে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বাসমালিকরা। তাঁরা জানিয়েছেন, তেলের দাম হু হু করে বেড়ে চলেছে। এই পরিস্থিতিতে ভাড়া না বাড়ানো হলে তাঁদের পক্ষে বাস পথে নামানো সম্ভব নয়। পরিবহণমন্ত্রীর সঙ্গহে দেখা করেও তাঁরা সেকথাই জানাতেন।

এমনিতেই ভাড়া না বাড়ালে পথে বাস না নামানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে একাধিক বাসমালিক সংগঠন। এবার মিনিবাস মালিকরাও একই সিদ্ধান্তে শরিক হলেন। পয়লা জুলাই থেকেই শহরে যান-যন্ত্রণা তীব্র আকার নেওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

গত সপ্তাহেই মুখ্যমন্ত্রী বেসরকারি বাস মালিকদের মাসিক ১৫ হাজার করে টানা তিন মাস ভর্তুকি দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর সেই প্রস্তাবেও সাড়া দেননি বাসমালিকরা।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV