কলকাতা: ফের শহরে আরও এক খারাপ অভিজ্ঞতার শিকার সাংসদ-অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী।

কয়েকদিন আগেই প্রকাশ্যে রাস্তায় এক ট্যাক্সি চালকের অশ্লীল ইঙ্গিতের শিকার হন মিমি। এবার খাবার অর্ডার দিয়ে ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা হল তাঁর।

শহরের এক নামি দোকান থেকে খাবার কিনেছিলেন তিনি। আর সেই খাবারে ব্রেডের গায়ে দেখা যাচ্ছে ফাংগাস। ট্যুইটারে সেই ছবি পোস্ট করেছেন মিমি। সেখানে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে খাবারের গায়ে কালো কালো ছত্রাক।

ট্যুইটারে মিমি লিখেছেন, গত ১৬ সেপ্টেম্বর এই অভিজ্ঞতা হয়েছে তাঁর। শ্যুটিং চলাকালীন খাবার অর্ডার করেছিলেন তিনি। আর সেই খাবার খেতে গিয়েই এটা দেখতে পান। ইতিমধ্যেই এই খাবারের বিষয়ে কলকাতা পুরসভয় অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি।

খাবারের নমুনা ও বিল পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে পুরসভায়।

গত কয়েকদিন আগেই শহরের রাস্তায় আরও এক খারাপ অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হন তিনি।

ঘটনার সূত্রপাত কয়েকদিন আগে মিমি জিম থেকে বাড়ি ফেরার সময়। রবিবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটে বালিগঞ্জ এবং গড়িয়াহাটের মাঝামাঝি এলাকায়। জিম থেকে ফেরার সময় ট্র্যাফিক সিগনালে মিমির গাড়ি দাঁড়িয়েছিল। তখন একটি ট্যাক্সি তাঁর গাড়িকে ওভারটেক করে। মিমি কাঁচ নামিয়েছিলেন। তখনই তিনি লক্ষ্য করেন, পাশে দাঁড়ানো ট্যাক্সিটির চালক তাঁর দিকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করছে।

ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে গাড়ি থেকে নামেন মিমি। ট্যাক্সিচালককেও টেনে নামান। ধমকে বলেন, তাকে পুলিশে দেওয়া হবে। কিন্তু মিমি এভাবে রাস্তায় নেমে আসায় স্বাভাবিকভাবেই রাস্তায় লোক জমে গিয়েছে।

এরপর পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে ঘটনা জেনে অভিযুক্ত চালকের খোঁজ শুরু করে। রাতেই তাকে গ্রেফতারও করা হয়। মিমি জানিয়েছে, ওইদিন মিমির দেহরক্ষী তাঁর সঙ্গে ছিলেন না।

পুলিশ এদিন জানায়, সোমবার দুপুর ১টা নাগাদ নাগাদ বালিগঞ্জ ফাঁড়ির কাছে ক্রমাগত হর্ন দিতে দিতে মিমির গাড়িকে ওভারটেক করে একটি ট্যাক্সি। মিমি গাড়ি থেকে নেমে ট্যাক্সিটি দাঁড় করান। তখন ট্যাক্সিচালক মিমির উদ্দেশে অনবরত কটূক্তি করে। অশ্লীল অঙ্গভঙ্গিও করে। সাংসদ দ্রুত কর্তব্যরত সার্জেন্টের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।