নয়াদিল্লি: সোমবার থেকে শুরু হল পার্লামেটের শীতকালীন অধিবেশন। এবার মা-কে সঙ্গে নিয়ে হাজির সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিও আপলোড করেন অভিনেত্রী সাংসদ। মা-কে ঘুরিয়ে দেখান সাংসদ ভবন। টলিউটের জনপ্রিয় মুখ মিমি চক্রবর্তী গত লোকসভা নির্বাচনে যাদবপুর কেন্দ্র থেকে জয়ী হন।

সাংসদ হওয়ার পর থেকেই জনতার দরবারে তাঁকে বহু বার দেখা গিয়েছে। সম্প্রতি বাইপাসের রাস্তা খারাপ জানিয়ে নগরোন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে চিঠি লিখেছিলেন মিমি। যদিও এর ফল হয় বিপরীত। সাংবাদিকদের সামনে মিমির নামে ক্ষোভ উগড়ে দেন ফিরহাদ। নগরোন্নয়নমন্ত্রী জানান, চিঠি লিখলেই সাংসদের দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না। রাস্তা সারাইয়ের জন্য সাংসদ তহবিলের টাকা দিতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

শীতকালীন অধিবেশনে সরগরম পার্লামেন্ট। অনেকেই মনে করছেন শীতকালীন অধিবেশনে এবার উষ্ণতা ছড়াবেন সাংসদরা। সাংসদ হওয়ার পর পার্লামেন্টে ছবি পোস্ট নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রমণের মুখে পড়েন মিমি-নুসরত। সেই সময় দুই তারকা সাংসদের পোশাক নিয়ে আপত্তি তুলেছিলেন অনেকে। অন্যদিকে, মিমি উপস্থিত থাকলেও এবার শীতকালীন অধিবেশনে থাকতে পারছেন না নুসরত। অসুস্থতা জনিত কারণে তাঁকে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। পরে শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে ছেড়ে দেওয়া হয় নুসরতকে।

পশ্চিমবঙ্গে চলছে রাজ্যপাল-মুখ্যমন্ত্রীর সংঘাত। এই অবস্থায় তৃণমূল সাংসদরা পার্লামেন্টে দাপটের সঙ্গে রাজ্যের নানা সমস্যা তুলে ধরবেন বলেই মনে করছে নানা মহল। সেই শীতকালীন সেশনে মা-কে সঙ্গে নিয়ে গেলেন অভিনেত্রী সাংসদ মিমি। গুরুজনের আশীর্বাদ পাথেয় করেই যে তিনি চলতে চান, সে কথাই প্রমাণ করল এই ছবি।