স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: টানা কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রচারের ধকলের পর কয়েকটা একটু নিরিবিলিতে কাটাতে চেয়েছিলেন দক্ষিণ কলকাতার তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী৷ইচ্ছে ছিল পুরীর জগন্নাথদেবের কাছে গিয়ে পুজো দেওয়া৷ সমস্ত পরিকল্পনা অনুযায়ী বিমানের টিকিটও কাটা হয়ে গিয়েছিল৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত মনের ইচ্ছে পূরণ হল না তাঁর৷মিমির জগন্নাথ দর্শনে বাধা হয়ে দাঁড়াল ফণী৷

দলের অনুমতি নিয়েই ২রা মে পুরী যাওয়ার কথা ছিল মিমির৷বাব-মার সঙ্গে তিনদিন জগন্নাথধামে কাটানোর ইচ্ছে ছিল তাঁর৷ঠিক হয়েছিল, পুরীতে জগন্নাথ দেবের মন্দিরে গিয়ে পুজো দেবেন। সেইমতো কলকাতা-ভুবনেশ্বরের বিমানের টিকিট কেটে ফেলেছিলেন তিনি। ৪ মে, ফেরার টিকিটও কেটে নিয়েছিলেন। আজ, শনিবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সভাও বাতিল করে দিয়েছিলেন৷

কিন্তু ফণীর তাণ্ডব টলি নায়িকার সব পরিকল্পনায় জল ঢেলে দিয়েছে । আপাতত, মিমি কসবায় নিজের ফ্ল্যাটে সময় কাটাতে হচ্ছে। তবে শুক্রবারও তাঁর পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি বাতিল করেছেন। একই সঙ্গে আজ, শনিবার ভাঙড়ের সভাও তিনি বাতিল করে দিয়েছেন।

শুক্রবার ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার বাতাসের গতিবেগে মুহূর্তে লন্ডভন্ড হয়ে গিয়েছে ওড়িশার বিস্তীর্ণ অঞ্চল। ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলায় সমস্ত প্রস্তুতি থাকা সত্ত্বেও ৮ জনের প্রাণহানি হয়েছে। প্রশাসনের হিসেবে ভুবনেশ্বর, কটক, জাজপুর, ভদ্রকে কয়েক হাজার গাছ পড়ে আটকে গিয়েছে সড়ক। মোবাইল টাওয়ার উপড়ে ওড়িশার বিস্তীর্ণ এলাকার সঙ্গে বাকি বিশ্বের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ফণীর তাণ্ডবে তছনছ হয়ে গিয়েছে হয়েছে ভুবনেশ্বরের বিজু পট্টনায়ক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। ওড়িশা সরকার জানিয়েছে, ঝড়ের দাপটে বিপুল ক্ষতি হয়েছে বিমানবন্দরের যন্ত্রপাতির।শুক্রবার ভুবনেশ্বর থেকে ৩৯টি উড়ান বাতিল করা হয়। শনিবার দুপুর ১টা নাগাদ বিমান পরিষেবা চালু হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে।