কলকাতা- আজ ভাই ফোঁটা। সারা বছর যে মানুষটার পিছনে সঙ্গে খুনশুটির সম্পর্ক আজ তাকে নিয়েই হই হই করার দিন। কে কী খাওয়াচ্ছে আর কী উপহার পাচ্ছে তা নিয়েই আজ সাজো সাজো রব। সেলেব্রিটি থেকে রাজনৈতিক মহল, সর্রবত্রই আজ ভাইফোঁটা নিয়ে চরম ব্যস্ততা। প্রতি বছরের ন্যায় টলি পাড়ার নায়িকা তথা দুই সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও নুসরত জাহানের থেকে ভাইফোঁটা নিলেন রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

প্রত্যেক বছরই ঘটা করে ভাইফোঁটা পালন করেন অরূপ বিশ্বাস। এবারেও বৃদ্ধাশ্রম নবনীড়ে ভাইফোঁটার আয়োজন করেছিলেন তিনি। উপস্থিত ছিলেন টলি পাড়ার তারকারা। এই প্রথম সাংসদ নির্বাচিত হয়ে ভাইফোঁটা দিলেন মিমি ও নুসরত। কাজের সূত্রে মিমির শহরের বাইরে থাকার কথা ছিল। তাই সকাল থেকেই জল্পনা চলছিল এবার তারকা-সাংসদ ভাইফোঁটা দিতে পারবেন কিনা। কিন্তু সমস্ত জল্পনার অবসান করে মিমি ও নুসরত দুজনেই উপস্থিত ছিলেন এদিন।

মিমি এদিন নবনীড়ের মঞ্চে ভাইফোঁটা দিয়ে নিজের অ্যালবামের গানও গেয়েছেন। অন্যদিকে নুসরতও স্বামী নিখিল জৈনকে নিয়ে উপস্থিত ছিলেন সেখানে।

মিমি নুসরত ছাড়াও তারকাখচিত ভাইফোঁটায় এদিন উপস্থিত ছিলেন জুন মালিয়া, ইমন চক্রবর্তী, রণিতা, প্রিয়ঙ্কা সরকার-সহ আরও অনেকে। এঁরা প্রত্যেকেই অরূপ বিশ্বাসকে ভাইফোঁটা দেন। ইমন রঙ্গবতী গান গেয়ে ভাইফোঁটার মঞ্চ মাতিয়ে তোলেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।