মুম্বই:  অতিরিক্ত মাত্রায় ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মঘাতী সৌম্যা জোহেব খান। বিখ্যাত গায়ক মিকা সিংহের সঙ্গে কাজ করতে সৌম্যা। অনুষ্ঠান সূচি থেকে শুরু করে সমস্ত কিছু দেখার কাজ ছিল সৌম্যার উপরেই। পুলিশ জানিয়েছে, গত ৩ ফেব্রুয়ারি মুম্বইয়ের আন্ধেরিতে মিকার স্টুডিয়োতেই আত্মহত্যা করেন তিনি।

দীর্ঘদিন ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন সৌম্যা। আর সেই কারণেই এই আত্যহত্যার ঘটনা বলে মনে করছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। তবুও এই ঘটনার সঙ্গে অন্য কোনও ঘটনা জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রয়োজনে সৌম্যার কাছের কিছু মানুষকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে বলে ইঙ্গিত তদন্তকারী আধিকারিকদের।

ছবি: ইন্সটাগ্রামের সৌজন্যে

ইনস্পেক্টর পি ভোষলে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, মিকার স্টুডিয়োর দোতলায় থাকতেন সৌম্যা। দীর্ঘদিন ধরে সেখানেই থাকতেন তিনি। গত ৩ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ স্টুডিওর কয়েকজন কর্মী কিছু কাজে দোতলায় যান। সেখানেই সৌম্যার নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখেন তাঁরা। তৎক্ষণাৎ তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ। হাসপাতালেই চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

৩ ফেব্রুয়ারি মৃত্যু হলেও প্রথমে তদন্তের জন্যে কেউ কোনও কথা বাইরে জানাননি। এমনকি সঙ্গীতশিল্পী মিকা এবং তাঁর টিমের অন্যান্যরাও এই বিষয়ে কারোর কাছে কিছু জানাতে চাননি। তবে কিছু দিন আগে সৌম্যার একটি ছবি পোস্ট তাঁর মৃত্যুসংবাদ ঘোষণা করেন মিকা। সেখানে পাঞ্জাবি এই সঙ্গীত শিল্পী লেখেন, “সৌম্যা আমাদের ছেড়ে চলে গিয়েছেন। ফেলে গিয়েছেন তাঁর সমস্ত স্মৃতি। যেখানেই থাকুন ভাল থাকুন।”