নয়াদিল্লি: যাত্রীবাহি বিমানে সামাজিক দূরত্ব মানতে মাঝের আসন খালি রাখার নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের। এক যাত্রীর সঙ্গে অন্য যাত্রীর মাঝে যাতে পর্যাপ্ত দূরত্ব থাকে সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতেই এই সিদ্ধান্ত শীর্ষ আদালতের। এরই পাশাপাশি বিমানে ওঠা যাত্রীদের মুখে মাস্ক বা ফেস সিল্ড থাকা বাধ্যতামূলক বলে জানিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত।

করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে পঞ্চম পর্যায়ের লকডাউন। তবে এই লকডাউনে একাধিক ক্ষেত্রে ছাড় দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সোমবার থেকেই শুরু হয়েছে আনলক. ১ পদ্ধতি। ধীরে ধীরে ছন্দে ফেরার চেষ্টায় দেশ। সোমবার থেকেই রেল, বিমান, বাস পরিষেবা কিছুটা সচল হয়েছে। সব ক্ষেত্রেই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার নির্দেশ রয়েছে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনেই বাড়ির বাইরে বেরোনর পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের। সরকারও এব্যাপারে বেশ কড়া। ট্রেন-বাসে যাত্রীদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব যাতে বজায় থাকে সেব্যাপারে একাধিক পদক্ষেপ করা হয়েছে।

সাধারণ মানুষকে করোনার সংক্রমণ সম্পর্কে সচেতন করতে একাধিক মাধ্যমে চলছে সচেতনতামূলক প্রচার। তবে বিমানে কীভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হবে সেই বিষয়টি নিয়ে খানিকটা উদ্বেগ ছিল।

সাধারণ মানুষের সেই উদ্বেগ এবার নিরসণ করল সুপ্রিম কোর্ট। দেশের শীর্ষ আদালত সাফ জানিয়েছে, বিমানের মাঝের আসনগুলি ফাঁকা রাখতে হবে। এক যাত্রীর সঙ্গে অন্য যাত্রীর যাতে কমপকষে ৬ ফুট দূরত্ব থাকে সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে সংশ্লিষ্ট বিমান সংস্থাকে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প