কলকাতা : রাজ্য সরকার উদ্যোগী হলেও মত দিচ্ছে না মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ। ১লা জুলাই থেকে রাজ্যে আপাতত চালু হচ্ছে না মেট্রো। সোমবার নবান্নে বৈঠক বসেন পরিবহণ সচিব ও মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ। তবে বৈঠক এদিন অমীংমাসিত থাকে।

মেট্রো রেল চালানোর ব্যাপারে সোমবারের বৈঠকে কোনও সমাধানসূত্র পাওয়া যায়নি। এদিন মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ পরিষ্কার জানিয়ে দেয়, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মেট্রো চালানো সম্ভব নয়। সেক্ষেত্রে রেল মন্ত্রকের সঙ্গে কথা বলতে হবে রাজ্য সরকারকে। আরপিএফ দিয়ে ভীড় নিয়ন্ত্রণ করে সামাজিক দূরত্ব মেনে মেট্রো চালানো যে কার্যত অসম্ভব, তা এদিন জানিয়ে দিয়েছেন মেট্রো আধিকারিকরা।

এদিনের বৈঠকে জানানো হয়েছে, ১২ই অগাষ্টের আগে চলবে না মেট্রো। এদিকে, এর আগে, নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন নিয়ম মানলে কলকাতা মেট্রো চলাচলে ছাড় দিতে পারে রাজ্য সরকার। একই সঙ্গে আগামী ১লা জুলাই থেকে যে মেট্রো ফের একবার চলতে পারে সেই বিষয়েই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি। নবান্নে মমতা জানিয়ে ছিলেন, কলকাতা মেট্রোর সঙ্গে কথা বলছে রাজ্য সরকার। মেট্রোয় যতগুলি আসন ততগুলি আসনে যাত্রী নিয়েই চলাচল শুরু করার কথা বলা হয়েছে।

শুধু তাই নয়, মেট্রোর আসনগুলি যাতে ভালোভাবে স্যানিটাইজ করা হয় সে বিষয়েও কলকাতা মেট্রোকে নজর দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে তিনি জানিয়ে ছিলেন, এই পদ্ধতি মানলে কলকাতায় মেট্রো চলতে পারে। তাহলে ১ জুলাই থেকে মেট্রো চলতে পারে। তবে মেট্রো কর্তৃপক্ষের সঙ্গে পুলিশ বৈঠক করবে বলে জানিয়ে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। অন্যদিকে, আপাতত বন্ধই থাকছে ট্রেন পরিষেবা।

আগামী ১২ অগস্ট পর্যন্ত সমস্ত রকম পরিষেবা বন্ধ রাখারই সিদ্ধান্ত ভারতীয় রেলের। আপাতত শ্রমিক স্পেশাল যে ট্রেনগুলি চলছে সেগুলিই চলবে। পাশাপাশি চলবে কিছু স্পেশাল ট্রেন। শুধু তাই নয়, শহরতলির মধ্যে যে ট্রেন পরিষেবা শুরু হওয়ার কথা ছিল সেগুলিও আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় রেলের তরফে দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে এমনটাই জানানো হয়েছে। সেখানে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, আপাতত করোনা উদ্বেগের কথা ভেবে লোকাল, প্যাসেঞ্জার ট্রেন বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে। তবে সোমবারের বৈঠকে মেট্রো রেল জানিয়ে দেয় পয়লা জুলাই কোনওভাবেই মেট্রো চালানো সম্ভব নয়। সেক্ষেত্রে কলকাতায় মেট্রো চালানোর জন্য অপেক্ষা করতে হবে ১২ই অগাষ্ট পর্যন্ত।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ