বার্সেলোনা: আর্তুরো ভিদালের প্রথমার্ধের গোলে ভায়াদোলিদকে হারিয়ে লা লিগায় খেতাব ধরে রাখার দৌড়ে টিকে রইল বার্সেলোনা। জয়ের পাশাপাশি এদিন উল্লেখযোগ্য হয়ে রইল দলের মধ্যমণি লিওনেল মেসির জোড়া রেকর্ড। এদিন গোল না করেই জোড়া রেকর্ডের মালিক হয়ে গেলেন আর্জেন্তাইন সুপারস্টার।

শনিবার ম্যাচের ১৫ মিনিটে আর্তুরো ভিদালের গোলের বলটি অ্যাসিস্ট করেন মেসি। আর্জেন্তাইনের ডিফেন্স চেরা পাস থেকেই জয়সূচক গোলটি করেন চিলি মিডফিল্ডার। আর সেই অ্যাসিস্টের সঙ্গে সঙ্গেই একটি লা লিগা মরশুমে মেসিই প্রথম ফুটবলার যিনি ২০টি গোলের পাশাপাশি ২০টি গোলের ক্ষেত্রে অ্যাসিস্টও করলেন।

পৃথিবীর প্রথম পাঁচ মেজর সকার লিগের দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে এই অনন্য কৃতিত্ব অর্জন করলেন মেসি। ২০০২-০৩ মরশুমে ইপিএলে আর্সেনালের হয়ে এই রেকর্ড করেছিলেন থিয়েরি অঁরি। পাশাপাশি ২০০৮-০৯ মরশুমে সতীর্থ জাভি হার্নান্ডেজের পর দ্বিতীয় লা লিগা ফুটবলার হিসেবে একই মরশুমে ২০টি অ্যাসিস্টের নজির গড়লেন লিও।

জাভি এবং মেসি ছাড়া লা লিগার ইতিহাসে একই মরশুমে ২০টি অ্যাসিস্টের নজির কারও নেই। উল্লেখ্য, চলতি মরশুমে আপাতত ২২টি গোল করে লা লিগার শীর্ষ গোলদাতাদের তালিকায় সবার উপরে আর্জেন্তাইন। ১৮টি গোল করে দ্বিতীয় স্থানে করিম বেনজেমা।

এদিন ভায়াদোলিদের বিরুদ্ধে বার্সা পয়েন্ট নষ্ট করলেই রিয়ালের খেতাব জয় আরও সহজ হয়ে যেত। সেক্ষেত্রে পরের ম্যাচে গ্রানাদার বিরুদ্ধে জয় তুলে নিতে পারলেই ৩৪ বারের জন্য খেতাব নিশ্চিত হয়ে যেত লস ব্ল্যাঙ্কোসদের। কিন্তু রিয়ালের খেতাব জয়ের রাস্তা ততোটা সহজ হল না। সুয়ারেজের পরিবর্তে এদিন গ্রিজম্যানকে প্রথম একাদশে রেখে শুরু করেন সেতিয়েন।

কিন্তু ১৯ মিনিটে একটি ওপেন সিটার মিস করে হতাশা বাড়ান ফরাসি স্ট্রাইকার। দ্বিতীয়ার্ধে গ্রিজম্যানকে তুলে সুয়ারেজকে নামালেও গোলের ব্যবধান বাড়েনি। ভিদালের একমাত্র গোলেই তিন পয়েন্ট নিশ্চিত হয় বার্সেলোনার। ৩৬ ম্যাচ থেকে বার্সেলোনার সংগ্রহে ৭৯ পয়েন্ট। এক ম্যাচ কম খেলে ৮০ পয়েন্টে দাঁড়িয়ে রিয়াল মাদ্রিদ।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ