বার্সেলোনা: প্রথমার্ধেই দু’ গোলে পিছিয়ে পড়া দলকে দ্বিতীয়ার্ধে পথ দেখিয়েছিলেন৷ কিন্তু চোট সারিয়ে দলে ফেরা লিওনেল মেসি দলকে জেতাতে পারলেন না। রিয়াল বেতিসের কাছে ঘরের মাঠে হেরে গেল বার্সেলোনা। ন্যু ক্যাম্পে রবিবার লা লিগার ম্যাচে ৪-৩ গোলে বার্সাকে হারাল রিয়াল বেতিস। চলতি লিগে এটি বার্সেলোনার দ্বিতীয় হার।

ম্যাচের ৪৫ সেকেন্ডের মাথায় এগিয়ে যেতে পারত বার্সেলোনা। কিন্তু মালকমের পাস ডি-বক্সের মুখে পেয়েও তা কাজে লাগাতেই পারেননি মেসি। ষষ্ঠ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে বার্সেলোনা গোলরক্ষককে একা পেয়ে যান সেলসো। তবে পিএসজি থেকে লিওনে বেতিসে আসা আর্জেন্তাইন এই মিড-ফিল্ডার বল উড়িয়ে দেন।

২০ মিনিটে ন্যু কাম্প স্তব্ধ করে দিয়ে এগিয়ে যায় বেতিস। নিজেদের ধারে সতীর্থের বাড়ানো বল ধরে বাঁ-দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে রবের্তোকে কাটিয়ে গোলটি করেন স্প্যানিশ ডিফেন্ডার জুনিয়র ফিরপো। এর মিনিট তিনেক পর মেসির ফ্রি-কিকে ডি-বক্সের বাইরে বল পেয়েও তা গোল করতে পারেননি লংলে৷ তাঁর ভলি ঝাঁপিয়ে আটকে দেন গোলরক্ষক লোপেস। এর কিছুক্ষণ পর মুহূর্তের ব্যবধানে দু’টি সুযোগ নষ্ট হয় বেতিসের৷ তেইয়োর নিচু শট দারুণ ক্ষিপ্রতায় ঝাঁপিয়ে আটকে দেন স্টেগেন।

বেতিসের একের পর এক আক্রমণ রুখতে ব্যতিব্যস্ত বার্সেলোনা ৩৪ মিনিটে দ্বিতীয় গোল হজম করে। ডান দিক থেকে স্বদেশি ফরোয়ার্ড তেইয়োর পাস পেনাল্টি স্পটের কাছে একা পেয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন স্পেনের হোয়াকিন। ম্যাচে ফিরতে মরিয়া বার্সেলোনা দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে বারবার আক্রমণে উঠতে থাকে। কিন্তু ভালো কোনও সুযোগ তৈরি করতে পারছিলেন না মেসিরা।

অবশেষে ৬৮ মিনিটে মেসির সফল স্পট কিকে ম্যাচে ফেরে বার্সেলোনা। বাঁ-দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢোকা আলবা ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় তারা। গোল করতে ভুল করেননি মেসি৷ কিন্তু স্টেগেনের ভুলে বার্সার এই স্বস্তি বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। ৭১ মিনিটে সেলসোর জোরালো শট হাতে লেগে জালে জড়িয়ে যায়। এর পর ভিদালের নৈপুণ্যে ৭৯ মিনিটে আবারও ব্যবধান কমায় বার্সেলোনা। কিন্তু এক কিছু পরে সেলসোকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ক্রোয়েশিয়ান মিড-ফিল্ডার ইভান রাকিতিচ।

প্রতিপক্ষকে ১০ জনে পেয়ে দারুণভাবে সুযোগ কাজে লাগায় বেতিস। ৮৩ মিনিটে বাঁ-দিক থেকে ফিরপোর বাড়ানো বল ঠিকানায় পাঠাতে ভুল করেননি কানালেস। শেষের নাটকীয়তা তখনও বাকি ছিল। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে ভিদালের পাস গোলমুখে পেয়ে জালে পাঠান মেসি। তাতে ব্যবধান কমলেও হার এড়াতে পারেনি চ্যাম্পিয়নরা। বেতিসের কাছে হারলেও ১২ ম্যাচে সাতটি জিতে ও তিনটি ড্র করে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে এখনও শীর্ষে বার্সেলোনা।