বার্সেলোনা: বড় ফুটবলার, তার থেকেও বড় হৃদয়! কর্ডোবার বিপক্ষে প্রিয় সতীর্থের জন্য স্বার্থত্যাগের একটি দৃষ্টান্ত রাখলেন লিওনেল মেসি। হ্যাটট্রিকের সুযোগ থাকার পরও নিজে পেনাল্টি কিক না নিয়ে নেইমারকে নিতে দিলেন ফুটবলের বরপুত্র মেসি৷
কর্ডোবার বিপক্ষে ৮-০ গোলের বড় জয় পায় বার্সেলোনা। লুইস সুয়ারেজ বার্সেলোনার হয়ে প্রথম হ্যাটট্রিক করেন। হ্যাটট্রিক করার দুর্দান্ত সুযোগ ছিল জোড়া গোল করা মেসির সামনেও।
ম্যাচের ৪৬ ও ৮০ মিনিটে দুটি গোল করেন মেসি। ৮৫ মিনিটে পেনাল্টি পায় বার্সেলোনা। তার আগের ম্যাচেই পেনাল্টি থেকে গোল করা মেসি এদিন আর শট নেননি। নেইমারকে পেনাল্টি নিতে দেন তিনি। পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান ৭-০ করেন নেইমার।
একদিক থেকে নেইমারকে প্রতিদানও দিলেন মেসি। দলের পক্ষে ৬ নম্বর ও নিজের দ্বিতীয় গোলটি মেসি বলতে গেলে নেইমারের কাছ থেকে ছিনিয়েই নেন। ফাঁকা পোস্টে গোল করতে যাচ্ছিলেন নেইমার। গোল করার অবস্থায় ছিলেন মেসিও। নেইমার যখন বলটি মারতে যান, সেই সময়ই মেসি এসে সেটি মেরে দেন এবং গোল পান।
অনেকেই মনে করেন, মেসি নেইমারকে পেনাল্টি নিতে দিয়ে সেই দায় শোধ করেন। সুয়ারেজ অবশ্য বিষয়টি মেসির স্বার্থহীন ভাবনা হিসেবেই দেখছেন।
লা লিগায় সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার লড়াইয়ে মেসি আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো প্রায় একই সঙ্গে হাঁটছেন। এই অবস্থায় মেসির এমন ত্যাগ সত্যিই দৃষ্টান্ত।
সেভিয়ার বিপক্ষে রিয়াল মাদ্রিদকে হ্যাটট্রিক করে জেতান ক্রিস্তিয়ানো রোনাল্ডো। ৪২ গোল নিয়ে লা লিগার গোলদাতাদের তালিকায় শীর্ষে আছেন পর্তুগিজ তারকা। আর ৪০ গোল নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন আর্জেন্টিনা তারকা মেসি। ওই পেনাল্টি থেকে গোল পেলে রোনাল্ডোর সঙ্গে তাঁর ব্যবধান হতো এক গোলের৷ বাড়তো হ্যাটট্রিকের সংখ্যাও৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।